অধিনায়ক মাশরাফির শেষ সিরিজ

আপডেট: February 20, 2020, 1:29 am

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সাথে মাশরাফি মুর্তজা-সংগৃহীত

২০১৯ বিশ্বকাপের পর থেকেই মাঠের বাইরে মাশরাফি মুর্তজা। বিশ্বকাপের পর চোটের কারণে খেলেননি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। দীর্ঘদিন পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে যাচ্ছেন। যা অধিনায়ক হিসেবে তার শেষ সিরিজ।
বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টেস্ট দলের তিন ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক ও তামিম ইকবালের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান। সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, অধিনায়ক হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজটিকেই মাশরাফির শেষ সিরিজ হিসেবে দেখছেন। কেন এটিকে অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফির শেষ সিরিজ দেখছেন সেই ব্যাখ্যাও তিনি দিয়েছেন, ‘সামনের ওয়ানডে বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে আমাদের দল গোছাতে হবে। একজন অধিনায়কও ঠিক করতে হবে। বিশ্বকাপের আগে অন্তত দুই বছর যেন ওই অধিনায়কের নেতৃত্বে টিমটা খেলতে পারে। সুতরাং খুব দ্রুত আমরা ওয়ানডেতে নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করবো। সম্ভবত আগামী ৭-৮ তারিখে বোর্ড সভায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে।’
তবে নাজমুল হাসান এও বলেছেন জিম্বাবুয়ে সিরিজে ফিটনেস টেস্টে উতরেই খেলতে হবে মাশরাফিকে, ‘মাশরাফি এই সিরিজে অবশ্যই খেলছে এবং সেটা অধিনায়ক হিসেবে। তবে ফিট না হলে, সেটা ভিন্ন কথা। আগে তো বিপ টেস্ট পাশের কোনও ব্যাপার ছিল না। এখন তো এটা পাশ করতে হয়। প্রথম কথা মাশরাফিকে বিপ টেস্টে পাশ করে আসতে হবে। ওর জন্য অতটা কড়াকড়ি করবো না।’
গত ৫ জুলাই, ২০১৯, লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফি। প্রায় ৮ মাস পর জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়ে ফিরবেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। অনেকদিন ধরে খেলার বাইরে থাকা মাশরাফিকে ফিটনেস পরীক্ষা দিয়েই দলে ফিরতে হবে। যদিও মাশরাফিকে অন্যদের চেয়ে কিছুটা বাড়তি সুবিধাই দেবেন বিসিবি প্রধান, ‘আমি সব সময়ই বলে এসেছি সাকিবের মতো বদলি খেলোয়াড় আমাদের নেই, আবার মাশরাফির মতো অধিনায়ক এই মুহূর্তে আমাদের কাছে নেই। এটা মনে রাখতে হবে বাংলাদেশের ক্রিকেটে যেভাবে টার্নওভার করেছে তাতে সবচেয়ে বড় অবদান মাশরাফির। তার নেতৃত্ব ছিল অসাধারণ। আবার এটাও ঠিক ওর (মাশরাফির) সময় এসেছে সিদ্ধান্ত নেওয়ার, আর কতদিন খেলবে।’
জিম্বাবুয়ে সিরিজে অধিনায়ক হিসেবে শেষ সিরিজ খেলতে নামলেও ওয়ানডেতে খেলোয়াড় মাশরাফির দরজা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে না। ফিট থাকলে ভবিষ্যতে মাশরাফিকে দেখার সুযোগ আছে এই সংস্করণে। মূলত আগামী ২০২৩ বিশ্বকাপকে সামনে রেখেই নতুন অধিনায়কের খোঁজে বিসিবি, ‘অধিনায়ক আমরা ঘোষণা করে দেবো। কারও যদি পারফরম্যান্স এবং ফিটনেস ঠিক থাকে তাহলে খেলতে তো কোনও সমস্যা নেই। কেউ যদি খেলে যেতে চায়, খেলবে। জাতীয় দলে চান্স পেতে হলে যা যা করতে হয়, সেগুলো মাশরাফি পূরণ করতে পারলে খেলতে তো কোনও সমস্যা নেই।’
লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগের দিন গুঞ্জন উঠছিল মাশরাফির অবসরের ঘোষণার। পরে জানা গেলো দেশে ফিরে ঘরের মাঠেই অবসরের সিদ্ধান্ত নেবেন মাশরাফি। কিন্তু গত বিপিএলের সময় মাশরাফি উল্টো প্রশ্ন করেছেন তিনি কার কাছ থেকে অবসর নেবেন? এসব প্রসঙ্গে নাজমুল হাসান জানালেন, ‘আমরা দেখি নামী-দামী খেলোয়াড়েরা পরিকল্পনা করেই বলে দেয়, এটা আমার শেষ সিরিজ। আমাদেরও ইচ্ছে ছিল মাশরাফি যদি এমন সিদ্ধান্ত নেয়, তাহলে আমরা আয়োজন করে তাকে বিদায় জানাব। ইংল্যান্ডে থাকতে এমন ভাবনাই ছিল মাশরাফির। কিন্তু দেশে ফেরার পর দেখলাম ওর মানসিকতা কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। ও অবসর না নিলেও আমাদের তো একটা সিদ্ধান্ত নিতে হবে। খুব দ্রুতই আমরা আগামী বিশ্বকাপে যে নেতৃত্ব দেবে এমন একজনকে ওয়ানডে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেবো। তারপর ও যদি নিজের পারফরম্যান্সে দলে ঢুকতে পারে ঢুকবে। এটা তো কারও জন্য বাধা নয়।’
স্পট ফিক্সিংয়ের প্রস্তার পেয়েও সময়মতো তা আইসিসিকে জানাতে না পারার দায়ে নিষিদ্ধ সাকিব আল হাসান। আগামী অক্টোবরে শাস্তির মেয়াদ শেষ হবে তার। সাকিব ফিরলে কি তাকেই ওয়ানডে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেওয়া হবে? বিসিবি প্রধান সাকিবকেই অধিনায়ক হিসেবে দেখতে চান, তবে সেটি তার ফর্মে ফেরা সাপেক্ষে, ‘অবশ্যই। ও যদি ফর্মে চলে আসে। যেমন সাকিব ছিল, তেমনটাই থাকে তবে অবশ্যই সে অধিনায়ক হবে।’-বাংলা ট্রিবিউন