অনাহারে রেখে রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করার কৌশল মিয়ানমারের: জাতিসংঘ

আপডেট: মার্চ ১৩, ২০১৮, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


জাতিসংঘের একজন কর্মকর্তা সোমবার মন্তব্য করেছেন, মিয়ানমার অবশিষ্ট রোহিঙ্গাদেরও বের করে দিতে অনাহারে রাখার কৌশল বাস্তবায়ন করছে। তারা চায় খাদ্যাভাব তৈরি করে রোহিঙ্গাদের অনাহারে রাখতে, যাতে রোহিঙ্গারা বাধ্য হয়ে রাখাইন রাজ্য ত্যাগ করে।
মিয়ানমারে মানবাধিকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিশেষ দূত ইয়াঙ্ঘি লি বলেছেন, কাচিন ও কায়িন প্রদেশে সামরিক আক্রমণ পরিচালনা করারা পাশাপাশি মিয়ানমার সম্প্রতি রাখাইন প্রদেশ থেকে রোহিঙ্গাদের বিতাড়ন করতে তাদের অনাহারে রাখার ব্যবস্থা করেছে। সোমবার জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের সভা চলাকালে মিয়ানমারে সত্য অনুসন্ধান কমিটির প্রেসিডেন্ট মারজুকি দারুসম্যানের মাছে তার প্রতিবেদন উপস্থাপনকালে লি একথা বলেছেন।
২০১৮ সালের মার্চে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সহকারী মহাসচিব অ্যান্ড্রু গিলমোর বলেছিলেন, রোহিঙ্গা বিতাড়নে ‘সহিংসতা ও অভুক্ত রাখার’ কৌশল ব্যবহৃত হচ্ছে। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে অনাহারে রেখে বিতাড়নের কৌশলের কথা জানানো হয়েছিল। পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা জানিয়েছিল, পশ্চিম রাখাইনের খাবারের দোকান বন্ধ ক্রিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাধা দেওয়া হয়েছে ত্রাণ বিতরণেও। সূত্রঃ রয়টার্স, ভাইস ও গার্ডিয়ান।