অপুষ্টির চিকিৎসায় অসাধারণ সাফল্যের অংশ বাংলাদেশ

আপডেট: জুলাই ১৩, ২০১৯, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


অপুষ্টিতে আক্রান্ত শিশুর চিকিৎসায় অসাধারণ সাফল্যের অংশ হয়েছে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথ গবেষণায় দেখা গেছে, কলা,বুটের ডাল,সয়া আর বাদামের সমন্বয়ে তৈরি এক ধরণের মিশ্র খাবারের মাধ্যমে শিশুর অন্ত্রনালীর উপকারি ব্যাক্টেরিয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি এবং অপুষ্ট শিশুর সুষম বৃদ্ধিতে উন্নয়ন ঘটেছে। শুধু তাই নয়, শিশু হাড়, মস্তিস্ক ও দেহের সুষম বৃদ্ধিতেও ভূমিকা রাখছে এই মিশ্রিত খাদ্য।
যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক জেফরি গর্ডনের নেতৃত্বে বাংলাদেশে এই গবেষণা কার্যক্রমে অংশ নিয়েছেন আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআরবি) পুষ্টি কেন্দ্রের প্রধান তাহমিদ আহমেদ।
বিশ্ব খাদ্য সংস্থার হিসেবে, বিশ্বে পাঁচ বছরের নিচের ১৫ কোটি শিশু অপুষ্টির শিকার। দুর্বল ও ছোট হওয়ায় এসব শিশুর অনেকের অন্ত্রে অপূর্ণাঙ্গ ও অপরিণত ব্যাক্টেরিয়া থাকে।
ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির গবেষকদের বিশ্বাস, এ কারণেই শিশুর বৃদ্ধি কম হয়। তবে যে কোনো খাবারই শিশুর এই অপুষ্টি দূর করতে সমভাবে সক্ষম নয়। বাংলাদেশি শিশুদের সুস্থ অন্ত্রে প্রধানত কী ধরণের ব্যাক্টেরিয়া থাকে সেটি নিয়ে গবেষণা করেছেন গবেষকরা। এরপর তারা দেখেছেন,ইঁদুর ও শুকরের মধ্যে এই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্টেরিয়াগুলোকে কোন ধরনের খাদ্য বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।
জার্নাল সায়েন্সে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গবেষণায় বাংলাদেশের ১২ থেকে ১৮ মাসের ৬৮ শিশুকে সংশ্লিষ্ট করা হয়। দেখা গেছে, কলা, সয়া, চীনবাদাম ও বুটের ডালের মিশ্রণ শিশুদের অন্ত্রনালীর ব্যাক্টেরিয়া বৃদ্ধিতে সহায়তা করছে। পাশাপাশি শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, মস্তিস্ক ও হাড়ের গঠন উন্নয়নে এ খাদ্য মিশ্রন কাজ করছে।
গবেষণা প্রকল্পে অর্থায়ন করেছে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। সংস্থাটির জ্যেষ্ঠ প্রকল্প পরিচালক ক্রিস দাম্মান বলেন, ‘এটাই ভবিষ্যত কিংবা সর্বরোগের ওষুধ সেটি আমি বলতে চাই না। তবে এটা নিশ্চিতভাবেই সেরা উদ্দীপক এবং যার আশা আছে বলে আমরা মনে করি।’
গবেষণা দলের সমন্বয়ক আইসিডিডিআরবির পুষ্টি কেন্দ্রের প্রধান তাহমিদ আহমেদ বলেন,‘এটা হতে পারে অপুষ্টির চিকিৎসাব্যবস্থা পরিবর্তনকারী।’
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি