আইফোন এক্সের ভেতরে যা রয়েছে

আপডেট: নভেম্বর ৯, ২০১৭, ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্বের সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত স্মার্টফোন হিসেবে পরিচিত অ্যাপলের আইফোন। জনপ্রিয় এই স্মার্টফোনের ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সম্প্রতি অ্যাপল বাজারে নিয়ে এসেছে সর্বাধুনিক মডেল ‘আইফোন এক্স’।
২০০৭ সাল থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত বাজারে আসা আইফোনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দামি হচ্ছে, আইফোন এক্স। ৯৯৯ ডলার মূল্যের আইফোন এক্স-এর চমকপ্রদ ফিচারগুলো ইতিমধ্যে আমাদের সকলেরই জানা। কিন্তু এর ভেতরের যন্ত্রপাতির ব্যাপারটি অজানা। তবে এবার আইফিক্সিট নামক একটি সাইট আলোচিত এই হ্যান্ডসেটটি খুলে এর অভ্যন্তরের বেশ কিছু চমকপ্রদ বিষয় প্রকাশ করেছে।
যেমন আইফোন এক্সে একটি নয় বরং দুইটি ব্যাটারি ব্যবহার করেছে অ্যাপল। আর এক্ষেত্রে জায়গা ঠিক রাখতে ব্যাটারি দুটিকে স্থাপন করা হয়েছে ‘খ’ আকৃতিতে। আইফিক্সিট জানিয়েছে, নতুন এই আইফোনের অভ্যন্তরীণ ডিজাইন শুরুর দিককার আইফোনের অভ্যন্তরীণ ডিজাইনের প্রায় কাছাকাছি, যা তারা প্রত্যাশা করেছিলেন।
১০ বছরের দীর্ঘ একটি সময় সাফল্যের সঙ্গে পার করে এসেছে আইফোন, তাই কিছুটা ফিরে দেখা স্মৃতির মতোই এর ডিজাইন বিন্যাস করা হয়েছে। প্রথমেই লক্ষণীয় সবচেয়ে বড় যে পার্থক্যটি চোখে পড়ে, তা হচ্ছে, আইফোন এক্সে দুইটি ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে এবং ব্যাটারি দুটিকে ‘খ’ আকৃতি স্থাপন করা হয়েছে, চারপাশের অন্যান্য কম্পোনেন্টগুলোর সঙ্গে।
‘আইফোন এক্স’ এর সার্ভিসিং বা মেরামত সুবিধাকে ১০ এর মধ্যে ৬ নম্বর দিয়েছে সাইটটি। এই হ্যান্ডসেটের ডিসপ্লে এবং ব্যাটারি প্রতিস্থাপন ঝামেলাপূর্ণ নয়। তবে হ্যান্ডসেটটি পড়ে গিয়ে সামনের এবং পেছনের গ্লাস ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা দ্বিগুণ, যদি পেছনের গ্লাস ভেঙে যায়, তাহলে সবগুলো কম্পোনেন্ট খুলতে হবে এবং পুরো চেসিস প্রতিস্থাপন করা লাগবে।
আইফিক্সিট জানিয়েছে, আইফোনটির অভ্যন্তরীণ ডিজাইনে ডিসপ্লে এবং ব্যাটারি মেরামতকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। ডিসপ্লে ভেঙে গেলে বায়োমেট্রিক ফেস আইডি হার্ডওয়্যার অপসারণ না করেই নতুন ডিসপ্লে প্রতিস্থাপন করা যাবে, যার সুবিধা হচ্ছে- রিপেয়ার দ্রুত এবং কম খরচে করা যাবে। যদিও ডিসপ্লে মেরামত খরচটাও কম নয়, ২৭৯ ডলার পড়বে। অন্যান্য ক্ষতি হয়ে থাকলে মেরামত খরচ ৫৪৯ ডলারের মতো চড়া মূল্যে পৌঁছাতে পারে। আইফোন এক্সে ওএলইডি স্ক্রিন ব্যবহৃত হওয়ার এর মেরামত খরচ আইফোন ৮ প্লাসের তুলনায় এত বেশি। অ্যাপলের তথ্যমতে, আইফোন ৮ প্লাসের ডিসপ্লে মেরামত খরচ পড়বে ১৬৯ ডলার এবং অন্যান্য মেরামত খরচ ৩৯৯ ডলার।
অ্যাপল জানিয়েছে, দুর্ঘটনাজনিত ক্ষতি বা ভুল ব্যবহারের কারণে ডিসপ্লে প্রতিস্থাপনের প্রয়োজন পড়লে এই চার্জ প্রযোজ্য হবে।
আইফোন এক্সের মূল সার্কিট বোর্ডটি জায়গা সাশ্রয়ী ভাবে তৈরি করা হয়েছে। এর ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র লজিক বোর্ড অবিশ্বাস্য ভাবে কর্মদক্ষ। কানেক্টর এবং কম্পোনেন্টের ঘনত্ব অভূতপূর্ব। ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে নিরাপদ লেআউট।
সাইটটি জানিয়েছে, আইফোন এক্স এমনভাবে নির্মাণ করা হয়েছে যে এর অভ্যন্তরীণ স্কুগুলো খোলা বেশিরভাগ ব্যবহারকারীর জন্য অসম্ভব একটি ব্যাপার। ৯৯৯ ডলার খরচ করে যারা এই ফোনটি কিনবেন, তাদের জন্য এটি অবশ্যই একটি ভালো খবর।
এক নজরে দেখে নিন, কি কি কম্পোনেন্ট রয়েছে আইফোন এক্সের অভ্যন্তরে-১. লজিক বোর্ড ব্র্যাকেট, ২. ফ্রন্ট কেসিং এবং স্ক্রিন, ৩. এয়ারপিস স্পিকার, ৪. ডুয়াল ব্যাটারি, ৫. ফার্স্ট লজিক বোর্ড লেভেল, ৬. সেকেন্ডে লজিক বোর্ড লেভেল, ৭. লজিক বোর্ড চিপ কাভার, ৮. টেকটিক ইঞ্জিন, ৯. রিয়ার ফেসিং ক্যামেরা, ১০. ট্রুডেপথ ক্যামেরা অ্যারে, ১১. কম্পোনেন্ট কানেক্টর, ১২. রিয়ার ক্যামেরা ব্রাকেট, ১৩. কম্পোনেন্ট কানেক্টর, ১৪. লোয়ার স্পিকার এনক্লোজার, ১৫. ওয়্যারলেস চার্জিং কয়েল, ১৬. টপ স্কিার অ্যাসেমব্লি, ১৭. লাইটিং কানেক্টর, ১৮. রিয়ার কেসিং গ্লাস ও ১৯. সিম ট্রে।