আজ থেকে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা শুরু

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮, ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ-সোনার দেশ

আজ রাজশাহীতে তিন দিনব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা শুরু হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের সহযোগিতায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আজ বিকেলে এ মেলার উদ্বোধন করবেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। গতকাল সোমবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মেলার ব্যাপার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) নাসিমা খাতুন।
জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফের সভাপতিত্ব সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার তাসনিম জাহান, শারমিন আক্তার, ইকবাল হাসান, কামাল হোসেন, রনী খাতুন প্রমুখ।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) নাসিমা খাতুন বলেন, আজ মঙ্গলবার বিকেলে তিনটায় রাজশাহী কলেজ মাঠ প্রাঙ্গণে এ মেলার উদ্বোধন করা হবে। মেলায় সরকারি-বেসরকারি ৭০টি প্রতিষ্ঠান তাদের সেবা প্রদর্শন করবে। সেবার ধরণ হিসেবে এবারই প্রথম মেলার স্টলগুলোকে নির্দিষ্ট প্যাভিলিয়নে ভাগ করে রাখা হবে।
এর মধ্যে প্যাভিলিয়ন-১ এ থাকবে ই-সেবাসমূহ। প্যাভিলিয়ন-২ এ থাকবে ডিজিটাল সেন্টার, পোস্ট ই-সেন্টার, ফিন্যান্সিয়াল ইনক্লুশন ও ব্যাংক। আর প্যাভিলয়ন-৩ এ থাকবে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি।
এর মধ্যে রয়েছে জেলা ব্র্যান্ডিং, দক্ষতা উন্নয়ন, কর্মসংস্থান এবং রুরাল ই-কমার্স। শিক্ষা সংশ্লিষ্ট স্টলগুলো থাকবে প্যাভিলিয়ন-৪ এ। এছাড়া প্যাভিলিয়ন-৫ এ থাকবে তরুণ উদ্ভাবকদের উদ্ভাবিত জিনিসপত্র। চলবে প্রতিযোগিতাও। ‘ইনোভেথন’ নামের আকর্ষণীয় এ প্রতিযোগিতায় রাজশাহীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ১০টি নাগরিক সমস্যার সমাধানের জন্য তাদের উদ্ভাবিত প্রকল্প নিয়ে অংশ নেবে।
ইনোভেশন নামক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। এ প্রতিযোগিতায় রাজশাহী জেলার ১০টি নাগরিক সম্যসা (কৃষি, ভূমি, শিক্ষা, আইন ও নিরাপত্তা, স্বাস্থ, শিশু ও নারী উন্নায়ন, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তিদের জন্য উদ্ভাবন, দক্ষতা ও কর্মসংস্থান, ই-কমার্স) সমাধান কল্পে তাদের উদ্ভাবনী প্রকল্পের প্রোটোটাইপ প্রদর্শন করা হবে।
বুধবার সকাল ১১ টায় ‘মুক্তিযোদ্ধা ও বঙ্গবন্ধু শীর্ষক অনুষ্ঠান, ১২ টায় কুইজ প্রতিযোগিতা, বৃহস্পতিবার সকালে ১১ টায় ‘আমার চোখে ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক ৪০ টি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন, বিকেল ৪টায় সমাপনী অনুষ্ঠান। এছাড়াও প্রতিদিন বিকেলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।