আত্মরক্ষায় ঘুষি মেরেছিলেন স্টোকস

আপডেট: আগস্ট ১১, ২০১৮, ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


লর্ডসে চলছে খেলার দ্বিতীয় দিন, উল্টো দিকে ব্রিস্টলে দ্বিতীয় দিনের মতো মামলার বয়ানে অংশ নিয়েছেন বেন স্টোকস। অস্বীকার করলেন তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ। জানালেন মারামারিতে জড়িয়েছেন নিজেকে রক্ষা করতেই! তিনি স্বীকার করেছেন বাঁচতে বেশ কয়েকবার ঘুষি মারবার কথা।
প্রতিরক্ষাতে ঘুষি মারবার কথা স্বীকার করলেও প্রকাশ্যে মারামারিতে জড়ানোর কথা স্বীকার করেননি ইংলিশ অলরাউন্ডার। ২৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার বলেছেন, ‘আমার দেওয়া বিবৃতিতেই সব পরিষ্কার করেছি। আমি কিছু ঘুষি মেরেছিলাম।’ মারামারিতে না জড়িয়েও ঘুষি? এর ব্যাখ্যায় স্টোকস বলেছেন, বার বার নিজেকে অরক্ষিত মনে হওয়াতেই আত্মরক্ষায় এমনটি করেছিলেন।
শুনানিতে তার সঙ্গে রয়েছেন রায়ান আলী। এই রায়ানকেই ঘুষি মেরে অজ্ঞান করে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে স্টোকসের বিরুদ্ধে। আলীর বিরুদ্ধে একই অভিযোগ থাকলেও তিনি একই বক্তব্য ব্যবহার করেছেন স্টোকসের মতো। প্রকাশ্যে মারামারির ঘটনায় নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন। অপর দিকে তার আরেক সহযোগী রায়ান হেলকে এই অভিযোগ থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে গতকাল।
স্টোকস আত্মরক্ষার কথা বার বারই উচ্চারণ করেছেন আদালতে। বলেছেন পুরো ঘটনাতেই তিনি জড়িয়েছেন রায়ান আলী ও হেলের কাছ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে। যাদের বিরুদ্ধে সমকামী কেই ব্যারি ও উইলিয়াম ও’কনোরকে উদ্দেশ্য করে বিদ্বেষপূর্ণ ভাষা প্রয়োগের অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া রায়ান আলীকে মেরে অজ্ঞান করে ফেলে দেওয়ার অভিযোগটিও অস্বীকার করেছেন স্টোকস। অস্বীকার করেছেন মদ্যপ থাকার অভিযোগটিও।