আপেলে ১০০ মিলিয়ন উপকারী ব্যাকটেরিয়া!

আপডেট: আগস্ট ১, ২০১৯, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


প্রতিদিন একটি আপেল খেলে ডাক্তারের কাছ থেকে দূরে থাকা যায়- এমনই এক প্রবাদ প্রচলিত আছে। এর মানে একটি আপেলে শরীরের প্রয়োজনীয় অনেক পুষ্টিগুণ আছে, তেমনটাই বলেন ডাক্তাররা।
নতুন এক গবেষণায় জানা গেছে, একটি আপেলে ১০০ মিলিয়ন ব্যাকটেরিয়া আছে, যা মানুষকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে। এমনটাই বলেছেন বিজ্ঞানীরা। অবশ্য সেসব ব্যাকটেরিয়া বেশিরভাগই থাকে আপেলের কেন্দ্রে ও বীজগুলোতে, সেগুলো ছাড়া আপেলের বাকি অংশে থাকে ১০ মিলিয়ন মাইক্রোব।
এ নিয়ে গবেষণা করা অস্ট্রিয়ার গ্রাজ ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির প্রফেসর গ্যাবরেইল বার্জ বলেন, ‘আমরা হিসাব করে দেখেছি ২৪০ গ্রাম ওজনের একটি আপেলে অন্তত ১০০ মিলিয়ন ব্যাকটেরিয়া থাকে। খাবারে থাকা বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়া, ফাঙ্গাস ও ভাইরাস আমাদের পাকস্থলীতে গিয়ে সাময়িক সময়ের জন্য জমা হয়। তবে খাবার রান্না করার ফলে হজম ও শরীরের জন্য উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলোর বেশিরভাগই মরে যায়।’ এক্ষেত্রে পাকস্থলীর জন্য উপকারী ব্যাকটেরিয়া পাওয়া যায় ফল ও সবজিতে। আমাদের পাকস্থলীতে সাধারণত ১০০ ট্রিলিয়ন ব্যাকটেরিয়া ও অন্য সব মাইক্রোব থাকে। সেসব মাইক্রোব পাকস্থলী সুস্থ রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
গবেষণাটি ফ্রন্টিয়ার্স ইন মাইক্রোবায়োলজিতে প্রকাশিত হয়েছে। এই গবেষণায় মার্কেটে বিক্রি হওয়া আপেল ও অর্গানিক আপেলের মধ্যে তুলনা করা হয়েছে। দেখা গেছে, দুই ধরনের আপেলেই প্রায় একই পরিমাণের ব্যাকটেরিয়া আছে। তবে গবেষকরা এটা জানিয়েছেন যে, অর্গানিক আপেলে ব্যাকটেরিয়ার ধরন ও পরিমাণের সংখ্যা একটু বেশি।
প্রফেসর বার্জ বলেন, ‘প্রাকৃতিক উপায়ে উৎপাদিত তাজা আপেলে বাজারে পাওয়া আপেলের তুলনায় বেশি পরিমাণে ও ভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকে।’ এ কারণে অর্গানিক আপেল বেশ স্বাস্থ্যকর। বাজারে বিক্রি হওয়া আপেলে এসিরিকিয়া শিগেলা নামের এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গেছে, যা রোগ সৃষ্টির জন্য দায়ী। এ ব্যাকটেরিয়া অর্গানিক আপেলে পাওয়া যায় না। তথ্যসূত্র: স্কাই নিউজ