আবরার হত্যার বিচার দাবিতে রাজশাহীতে সড়ক অবরোধ

আপডেট: অক্টোবর ৮, ২০১৯, ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক


বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুটি ছাত্র সংগঠন। গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে দুপুর ২টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত তারা মহাসড়কে অবস্থান করে দুই পাশের গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেয়। মহাসড়ক অবরোধের আগে তারা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল বের করে।
এদিকে বিকেল পাঁচটায় রাবির প্রধান ফটকের সামনে মানববন্ধন করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল ‘হত্যাকারীর ফাঁসি চাই’ স্লোগানে ক্যাম্পাসের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে শহিদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলকে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।
সমাবেশে বক্তরা বলেন, ‘বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকা-ের সাথে জড়িতদের শুধুমাত্র ক্যাম্পাস থেকে বহিষ্কার করলেই সঠিক বিচার হবে না। তাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিস্বরূপ ফাঁসি দিতে হবে। লোক দেখানো গ্রেফতার আমরা চাই না। শুধু আবরার হত্যা না সারাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক হত্যাকাণ্ সংগঠিত হয়েছে। অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় না আনার কারণে ক্যাম্পাসগুলোতে সন্ত্রাসী কার্যক্রম দিনের পর দিন বেড়েই চলছে। কিন্তু এসব হত্যাকা-ের সুষ্ঠু বিচার হয়নি। আমরা আবরার হত্যাসহ এ পর্যন্ত দেশের যতগুলো স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে হত্যাকান্ড ঘটেছে সব হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার চাই।’
‘আন্দোলনকারীরা আরও বলেন, একজন শিক্ষার্থী নিরাপদ আবাসস্থল হলো হল, আর হলেই যদি শিক্ষার্থীরা নিরাপদ না থাকে তাহলে কোথায় নিরাপদ থাকবে? প্রশাসন শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ। হত্যাকান্ডে যারা জড়িত সকলের বিচার চাই। যতক্ষণ না পর্যন্ত সন্ত্রাসীদের বিচারের আওতায় আনা হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।’
সমাবেশ থেকে আজ (মঙ্গলবার) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিলের করার ঘোষণা দেয়া হয়।
রোববার দিবাগত রাতে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের নিচতলা থেকে আবরার ফাহাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। শিবির সন্দেহে ছাত্রলীগ তাকে পিটিয়ে হত্যা করে বলে অভিযোগ জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এঘটনায় ফুয়াদ ও রাসেল নামে দুই ছাত্রলীগ নেতাসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।