আরিফুলের দুর্দান্ত বোলিংয়ের ম্যাচে রাজশাহীর অবনমন

আপডেট: নভেম্বর ২০, ২০১৯, ১:০৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ম্যাচসেরা হয়েছেন আরিফুল ইসলাম-সংগৃহীত

গত আসরের চ্যাম্পিয়নই শুধু নয়,এবারের আগপর্যন্ত জাতীয় লিগের সবচেয়ে সফলতম দল ছিল তারা। তবে সেই সাফল্যের পথ ধরে এবার আর হাঁটা হয়নি রাজশাহীর। রংপুরের অলরাউন্ডার আরিফুল হকের দারুণ পারফরম্যান্সে শেষ রাউন্ডে হেরেছে তারা। নেমে গেছে দ্বিতীয় স্তরে।
নগরীর শহীদ কামারুজ্জামান স্টেডিয়ামে প্রথম স্তরের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে রাজশাহীকে ১৫৫ রানে হারিয়েছে রংপুর। মঙ্গলবার ম্যাচের শেষ দিনে ২৪৯ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ৯৩ রানেই গুটিয়ে যায় গত আসরের চ্যাম্পিয়নরা।
দুই ইনিংস মিলে ব্যাট হাতে ১০৫ রান ও বোলিংয়ে ৯ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন আরিফুল হক।
শেষ দিন সকালে আগের দিনের স্কোরেই দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে রংপুর। রাজশাহীর সামনে জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৪৯।
চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যে নেমে রাজশাহীর ইনিংস শুরু থেকেই পথহারা। আলাউদ্দিন বাবু, সাজেদুল ইসলাম ও আরিফুলের মিডিয়াম পেস বোলিংয়ের সামনে একরকম অসহায় আত্মসমর্পণ করেন দলটির ব্যাটসম্যানরা।
চতুর্থ ওভারে ওপেনার অভিষেক মিত্রকে ফিরিয়ে ধ্বংসযজ্ঞের শুরুটা করেন সাজেদুল। পরে উইকেট শিকারে যোগ দেন বাকি দুই বোলার। তাদের দূর্দান্ত বোলিংয়ে লাঞ্চের আগেই ৪২ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলে রাজশাহী।
একপ্রান্ত আগলে রেখেছিলেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান জুনায়েদ সিদ্দিক। লাঞ্চের পর তিনিই কিছুটা টানেন দলকে। অষ্টম উইকেটে সুজন হাওলাদারের সাথে যোগ করেন ৩১ রান।
৩৪ রান করা জুনায়েদকে ফিরিয়ে সেই প্রতিরোধ ভাঙেন আলাউদ্দিন বাবু। মোহর শেখের সাথে ২০ উইকেটের জুটি গড়ার পর ব্যক্তিগত ২৭ রানে তানবীর হায়দারকে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে আউট হন সুজন। শেষ ব্যাটসম্যান সানজামুল ইসলাম চোটের কারণে ব্যাটিংয়ে নামেননি।
তিনটি করে উইকেট পেয়েছেন আরিফুল ও বাবু। সাজেদুলের শিকার দুটি। দুই ইনিংস মিলিয়ে ৬১ রানে আরিফুল নিয়েছেন ৯ উইকেট, প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে ম্যাচে এটিই তার সেরা বোলিং প্রদর্শনী। ৬ ম্যাচে ১ জয়, দুই ড্র ও তিন হারে ১৮.৬৫ পয়েন্ট নিয়ে প্রথম স্তরের চার দলের মধ্যে সবার নিচে রয়েছে রাজশাহী। এই জয়ে রংপুরের পয়েন্ট দাঁড়িয়েছে ২১.৪৬। প্রথম রাউন্ডের আরেক ম্যাচে ঢাকা বিভাগকে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তুলেছে খুলনা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
রংপুর ১ম ইনিংস: ২৭৪
রাজশাহী ১ম ইনিংস: ২৫৪
রংপুর ২য় ইনিংস: ২২৮/৬ ডি.
রাজশাহী ২য় ইনিংস: ৪৩.১ ওভারে ৯৩ (অভিষেক ২, মিজানুর ৬, শাকির ০, জুনায়েদ ৩৪, ফরহাদ ১৩, সাব্বির ০, মুক্তার ৮, দেলোয়ার ১, সুজন ২৭, মোহর ১*; আলাউদ্দিন বাবু ১৮-৫-৪২-৩, সাজেদুল ১০-১-২১-২, আরিফুল ১২-৫-২০-৩, রিশাদ ১-০-৫-০, তানবীর ২.১-১-৪-১)
ফল: রংপুর ১৫৫ রানে জয়ী।
ম্যান অফ দা ম্যাচ: আরিফুল হক (রংপুর)।