ঈদের সিনেমা বাজারে ডেঙ্গু আতঙ্ক

আপডেট: আগস্ট ১১, ২০১৯, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সারা দেশে ডেঙ্গু জ্বর ছড়িয়ে পড়ায় এবার ঈদে প্রেক্ষাগৃহ থেকে দর্শকরা মুখ ফিরিয়ে নিতে পারে বলে শঙ্কিত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি।
হলমালিক ও প্রযোজকরা বছরজুড়ে দুই ঈদের অপেক্ষায় থাকলেও এবার তাদের লোকসান গুণতে হতে পারে বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন হলমালিকদের শীর্ষ সংগঠনটির উপদেষ্টা মিয়া আলাউদ্দিন। তিনি জানান, এবার ঈদে দুইটি চলচ্চিত্র মুক্তি পাচ্ছে; এর মধ্যে আছে জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত, শাকিব খান-বুবলী অভিনীত ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’। আরেকটি রোশান-ববি অভিনীত জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘বেপরোয়া’; ছবিটি পরিচালনা করেছেন কলকাতার পরিচালক রাজা চন্দ।
এর বাইরে এবার ঈদে ‘ভালোবাসার জ্বালা’ নামে আরেকটি চলচ্চিত্র মুক্তি দেওয়ার কথা জানিয়েছেন ছবিটির পরিচালক বশির আহমেদ।
চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির তথ্যমতে, বর্তমানে দেশে সচল প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা ১৭৪টি; দুই ঈদকে ঘিরে বেশ কয়েকটি বন্ধ প্রেক্ষাগৃহ সপ্তাহখানেকের জন্য চালু করা হয়। এই সাময়িক সময়ের জন্য চালু হওয়া প্রেক্ষাগৃহগুলোতেই মশার উপদ্রব বেশি থাকবে জানিয়ে মিয়া আলাউদ্দিন বলেন, “আমরা হলমালিকদের নির্দেশনা দিয়েছি ব্লিচিং পাউডার দিয়ে ভালোভাবে হল পরিষ্কার করতে হবে। এমনিতেই এবার ডেঙ্গুর কারণে মানুষ হলে কম যাবে, তার ওপর অপরিচ্ছন্ন হলে কেউ ছবি দেখার ঝুঁকি নেবে না।”
তিনটি চলচ্চিত্রের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক ১৫৪টি প্রেক্ষাগৃহে ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ মুক্তি পাচ্ছে বলে জানিয়েছেন চলচ্চিত্রটির পরিচালক জাকির হোসেন রাজু। বর্তমানে অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীদের নিয়ে এর প্রচারে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। ডেঙ্গুর প্রভাবে দর্শক কমার বিষয়টি মাথায় রেখেই ছবিটি মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানালেন এ পরিচালক; তারপরও ছবিটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী তিনি। দেশ-বাংলা মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত এ চলচ্চিত্রে আরও অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, মিশা সওদাগর, সাবেরী আলম, ডন, মাসুম বাশার, নাজিবা বাশার, সাদেক বাচ্চু।
গত বছর ঈদুল আজহায় মাত্র একটি হলে মুক্তি পেয়েছিল ‘বেপরোয়া’। ছবিটি এবার ঈদে দেশজুড়ে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। চলচ্চিত্রটির প্রধান দুই অভিনয়শিল্পীর একজন ইয়ামিন হক ববি নিজেই সপ্তাহখানেক আগে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এখন বিশ্রামে আছেন। ছবিটি মুক্তির দিন সহশিল্পীকে সঙ্গে নিয়ে প্রেক্ষাগৃহে যেতে পারবেন কি না তা নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন নায়ক রোশান।
তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ও (ববি) এখন বিশ্রামে আছে। স্বাভাবিকভাবে যদি ও সময় দিতে পারে তাহলে ওকে নিয়ে বের হওয়ার পরিকল্পনা আছে অন্যথায় তো সুযোগ নেই।” চলচ্চিত্রে ডেঙ্গু পরিস্থিতির প্রভাব বহুলাংশে নয়, আংশিক পড়তে পারে বলে ধারণা করছেন তিনি। “বাংলাদেশের মানুষ খুব দুঃসাহসী। তবে এবার সিনেমাতে কিছুটা প্রভাব ফেলতে পারে; কোনো আত্মীয়-স্বজন অসুস্থ থাকলে তো সিনেমা দেখতে আসা সম্ভব না। আমার মনে হয়, ডেঙ্গু আংশিক প্রভাব ফেলবে তবে সেটা বহুলাংশে না।” বন্যা আর ডেঙ্গুর বিষয়টি মাথায় রেখেই স্বল্প সংখ্যক প্রেক্ষাগৃহে ‘ভালোবাসার জ্বালা’ মুক্তি দিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন পরিচালক বশির আহমেদ। চলতি বছর জানুয়ারিতে সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়া ছবিটি এবার ঈদে ঢাকার বাইরে ১১টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শবনম পারভীন, আফজাল শরীফ, সরল হাসমত, শাহাদত, সুশান্ত, পরিমল, সুজন মিয়া ও নবাগত শাকিল খান ও অর্পা।