ঈশ্বরদীতে ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনকারি সেই প্রধান শিক্ষক ঢাকায় গ্রেফতার

আপডেট: জুন ১৮, ২০১৯, ১:০৬ পূর্বাহ্ণ

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি


গ্রেফতারকৃত প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হক -সোনার দেশ

ঈশ্বরদীর সেই প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হককে (৫০) অবশেষে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার ঢাকার শাহাবাগ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী তাকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, স্কুলের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় শনিবার কথা দিয়েছিলাম দ্রুততম সময়ের মধ্যে ওই প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করা হবে। সে কথা অনুযায়ী গতকাল সোমবার তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, ঈশ্বরদী থানার এএসআই শাহীন মিয়া, শামীম হোসেন, সেলিম হোসেন, কনস্টেবল শাজাহানসহ অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা মোজাম্মেল হককে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে ঈশ্বরদীতে নিয়ে এসেছেন। এদিকে ওই প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্কুল ম্যানেজিং কমিটি। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কামরুন্নাহার শরীফ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। অভিযুক্ত ওই প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করার দাবিতে শনিবার বিক্ষোভ এবং রাস্তায় কলা গাছ ফেলে সড়ক অবরোধ করে আলহাজ্ব টেক্সটাইল মিলস উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানায়, আলহাজ্ব টেক্সটাইল মিলস্ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের সঙ্গে অশোভন আচরণ, শ্লীলতাহানীসহ নানান অনৈতিক কর্মকাণ্ড করে প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হক এই স্কুলের সুনাম চরমভাবে ক্ষুন্ন করেছেন।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণি এক ছাত্রীকে শারিরিকভাবে শ্লীলতাহানী করার অভিযোগে ওই ছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় মামলা দায়ের করেন।
ওই ছাত্রী পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগে জানায়, গত ২৫ মে দুপুরে স্কুল মাঠে সে সহ তার কয়েকজন বান্ধবীদের সঙ্গে খেলছিলো। সে সময় প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হক ওই ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে তাকে বিভিন্ন ধরণের অশ্লি¬ল ও আপত্তিকর কথাবার্তা বলে শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানী করে। পরে তার বান্ধবীরা এগিয়ে এলে প্রধান শিক্ষক তাকে ছেড়ে দিয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় প্রভাবশালীরা ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে জোর চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হলে অবশেষে ওই ছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় একটি যৌন হয়রানীর মামলা দায়ের করেন। ঈদের ছুটির পর গত শনিবার স্কুল খোলার পর শত শত ছাত্র-ছাত্রীরা ওই প্রধান শিক্ষকে গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভে রাস্তায় নামে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ