উল্টাপাল্টা

আপডেট: আগস্ট ১০, ২০১৯, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

যেরীন মুক্তি


হরেক রঙের পায়রারা আর
ঝোঁটন বাঁধে না
নদীর জলে ছেলেময়েও
নাইতে নামে না।
শিয়াল মামা খাঁচায় বসে
দেখে তামাশা
বাঘের নাকে সুড়সুড়ি দেয়
পিঁপড়ার ছানাপোনা।
বেসুরে গান ধরে আজ কাকের
শালা- শালী
সেই দম্ভে বিড়াল ও কয় আমিও
বাঘের মাসি।

রাতের আলোয় বেজায় দেখি
আহা চমৎকার
দিনের আলোই চোখে কেবলই
ধাঁধার অন্ধকার।
চারদিকে আহারাজি চলছে কত
দেখি চমৎকার
নিজের কাঁধে আসলে পরে একি
একি সর্বনাশ!
কাগজ আর কলম পেলেই লিখে
ফেলি ছবি
আহা, না হলোই-আঁকা অত কি
আর জানি!

বড়বড় আওয়াজ তুলি আর
করি চিৎকার
সামনে পড়ে আকার হয়
কেবল পুটিমাছ।
পাশাপাশি বসেই কেবল
মস্ত ব্যবধান
এই ভাবে যাচ্ছে বয়ে
স্রোতের টানে
বাকি শুধু স্বপ্নগুলো
দুঃস্বপ্ন নাকি
আমি শুধুই স্বপ্ন দেখি
হয়ে স্বপ্নবাজ।