উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সোনার দেশের ৮ম বর্ষ উদযাপন

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০১৮, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


দৈনিক সোনার দেশের ৮ম বর্ষ পদার্পণ উপলক্ষে ফেস্টুন উড়িয়ে সোনার দেশের প্রতিনিধি সম্মেলন উদ্বোধন করেন সিল্কসিটি মিডিয়া লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিল্কসিটি মিডিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান শাহীন আক্তার রেনী ও সোনার দেশের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ-সোনার দেশ

নবযাত্রার ৮ম বর্ষে পা দিলো রাজশাহী থেকে প্রকাশিত দৈনিক সোনার দেশ। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে নানা কর্মসূচি পালন করেছে সোনার দেশ পরিবার। দীর্ঘদিন পর এই কর্মসূচি পালিত হওয়ায় সোনার দেশ পরিবারের মধ্যে দেখা সৃষ্টি হয় প্রাণচাঞ্চল্য। তারা প্রাণবন্তভাবে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে।
শুরুতে বেলা সাড়ে ১০টায় বেলুন উড়িয়ে ৮ম বর্ষে পদার্পণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন, ষিল্কসিটি মিডিয়ার ব্যবস্থপনা পরিচালক এবং রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিল্কসিটি মিডিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট সমাজসেবি শাহিন আক্তার রেণী, দৈনিক সোনার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত, সহকারী সম্পাদক রাশেদ ইবনে উবায়েদ রিপনসহ সোনার দেশ পরিবারের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের প্রতিনিধিরা।
এরপর একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি নগরীর আলুপট্টির কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে অলোকার মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে অবস্থিত মাস্টার শেফ রেস্তোরাঁয় একটি প্রতিনিধি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের আগে ৮ম বর্ষ পদার্পণের কেক কাটেন সিল্কসিটি মিডিয়ার চেয়ারম্যান শাহীন আক্তার রেণী।
এসময় তিনি বলেন, সোনার দেশকে ভালোবেসে আপনারা যে অক্লান্ত পরিশ্রম করে পত্রিকাটি সবার মাঝে গ্রহণযোগ্য করে তুলেছেন এইজন্য প্রত্যেকের প্রতি অভিনন্দন। এই ধারা আপনারা অব্যাহত রাখবেন। আপনাদের সৎ চিন্তা, সৎ উদ্দেশ্য পত্রিকাকে বেগবান করবে।
প্রতিনিধি সম্মলনে সভাপতিত্ব করেন, দৈনিক সোনার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত। পরিচালনা করেন, দৈনিক সোনার দেশের সহকারী সম্পাদক রাশেদ ইবনে উবায়েদ রিপন। এছাড়া প্রতিনিধিরা তাদের বক্তব্যে সোনার দেশ নিয়ে তাদের প্রাপ্তি, অপ্রাপ্তি, প্রত্যাশা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন।
আকবারুল হাসান মিল্লাত তার বক্তব্যে নানা দিক নির্দেশনামূলক কথা বলেন। জনবল সংকটসহ নানা ধরনের প্রতিকূলতা সত্ত্বেও সোনার দেশ তার কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। আগামিতে সবাইকে সাথে নিয়ে আরো ভালো করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।