এবার রফতানির লক্ষ্যমাত্রা ৪১০০ কোটি ডলার

আপডেট: জুলাই ৩১, ২০১৭, ১:২১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৪ হাজার ১০০ কোটি ডলার রফতানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। যা গত বছরের চেয়ে ৭ দশমিক ৮৭ শতাংশ বেশি।
রোববার সচিবালয়ের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ ও অনুমোদন’ সংক্রান্ত সভায় এ লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ সভায় সভাপতিত্ব করেন।
সভায় জানানো হয়, গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রফতানি লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪ হাজার ১২ কোটি ৫০ ডলার। এর বিপরীতে অর্জিত হয়েছে ৩ হাজার ৮০০ কোটি ডলার। প্রবৃদ্ধির হার হচ্ছে ১ দশমিক ৯৯ শতাংশ।
বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, চলতি অর্থবছরে পণ্য রফতানি করে ৩ হাজার ৭৫০ কোটি (৩৭ দশমিক ৫ বিলিয়ন) ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করেছে সরকার, যা গত অর্থবছরের চেয়ে ৮ দশমিক ২১ শতাংশ বেশি। সেবাখাতে ৪ দশমিক ৪২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ধরে ৩৫০ কোটি ডলার লক্ষ্যমাত্র নির্ধারণ করা হয়েছে। দুই খাত মিলে মোট ৪ হাজার ১০০ কোটি (৪১ বিলিয়ন) ডলার রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এবার প্রধান রফতানি পণ্য তৈরি পোশাক শিল্প খাত থেকে ৩ হাজার ১৬ কোটি ডলার আসবে বলে ধরা হয়েছে, যা মোট রফতানি লক্ষ্যমাত্রার ৮০ শতাংশ। আশা করি এই টার্গেটে পৌঁছাতে পারব।
‘রানা প্লাজা ধসের কারণে যে একটা নেগেটিভ ইমেজ তৈরি হয়েছিল সে থেকে এখনও পুরোপুর মুক্তি পায়নি। তাই এবার পোশাক রফতানি কমেছে। তবে এখন কারখানাগুলো আধুনিকায়ন হয়েছে। আশা করি এখন ঘুরে দাঁড়াবো।’
তোফায়েল আহমেদ বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে মোট ৬০ বিলিয়ন (৬ হাজার কোটি) ডলার রফতানি আয়ের লক্ষ্য পূরণ হবে। পোশাক রফতানিতে ৫০ বিলিয়ন ডলার অর্জিত হবে।
সভায় বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু, শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, এফবিসিসিআই সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন ছাড়াও অন্যান্য ব্যবসায়ী নেতা, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং অধীনস্থ দফতর-সংস্থার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।-জাগোনিউজ