এবার শাকিব-নুসরাত ফারিয়ার বিজ্ঞাপন

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০১৮, ১২:১১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


২০১৫ সালে ছোট পর্দা থেকে বড় পর্দায় নাম লেখান নুসরাত ফারিয়া। শুরুতেই বাজিমাত করেন। জাজ মাল্টিমিডিয়ার ব্যানারে তার অভিনীত প্রথম ছবি ‘আশিকী’ তাকে দর্শকের কাছে বেশ পরিচিত করে তোলে। এর মধ্য দিয়ে বাংলা সিনেমাজগতে লম্বা দৌড়ের সুযোগ আসে তার। এরপর একে একে অভিনয় করেছেন হিরো ৪২০, বাদশা-দ্য ডন, প্রেমী ও প্রেমী, ধ্যাততেরিকি, বস টু, ইন্সপেক্টর নটি কে ছবিতে। এসব ছবিতে তিনি তার বিপরীতে পেয়েছেন অভিনেতা আরিফিন শুভ, কলকাতার জিৎ, ওম ও অঙ্কুরকে।
দীর্ঘ প্রায় চার বছরের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারে অবশ্য এ দেশের নামি তারকা অভিনেতা শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করা হয়ে ওঠেনি নুসরাতের। কিন্তু গত আগস্টে সে কাজটিও সম্পন্ন হয়েছে, প্রথমবারের মতো নুসরাত জুটি বেঁধেছেন শাকিব খানের সঙ্গে। এ জুটি অভিনীত প্রথম ছবির নাম শাহেনশাহ। বর্তমানে ছবিটির শুটিং চলছে হরদম। গতকাল এফডিসিতে নুসরাত এ ছবিতে তার ২০তম দিনের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন। শুটিংয়ের বিরতিতে টকিজের সঙ্গে কথা হয় নুসরাতের। শাহেনশাহ ছবির শুটিং নিয়ে তাকে প্রশ্ন করা হলে বলেন, ‘এফডিসিতে শাহেনশাহ ছবির জন্য বানানো সেটটি সত্যিই সুন্দর। এছাড়া পুরো আয়োজনই আমার কাছে দারুণ লেগেছে।’ ছবির ভবিষ্যৎ নিয়ে এ অভিনেত্রীর বক্তব্য, ‘যতটুকু কাজ করেছি তাতে আমি এ ছবির ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী। আশা করি দর্শক ছবিটি দেখবেন এবং ভিন্ন স্বাদ পাবেন।’ এরপর ফারিয়া এ ছবিতে নিজের চরিত্র নিয়ে জানালেন, তার চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলতে যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন তিনি। ছবির গল্প, চরিত্রের সঙ্গে অভিব্যক্তির একটা ভারসাম্যও নাকি যুতসইভাবে বজায় রেখে চলেছেন ফারিয়া।
কথার ফাঁকে এ অভিনেত্রী নতুন একটি তথ্য দিলেন। তবে তা মোটেও চলচ্চিত্র-বিষয়ক নয়; বিজ্ঞাপন নিয়ে। তিনি চমকে দিয়ে জানান, আগামীকাল শাকিব খানের সঙ্গে একটি বিজ্ঞাপনেও মডেল হতে যাচ্ছেন তিনি। বললেন, ‘এখন ছবির শুটিং করছি। পরশু (আগামীকাল) আমি আর শাকিব খান একটি নতুন বিজ্ঞাপনের শুটিং করব।’ বিজ্ঞাপনটি সম্পর্কে নুসরাত জানান, এটি নির্মাণ করবেন আদনান আল রাজিব। বাংলালিংকের এ বিজ্ঞাপনটি নাকি বিশাল বাজেট আর বড় আয়োজনে বানানো হবে।
যে শাকিব খানের সঙ্গে এত দিন পর জুটি বাঁধলেন, তার সঙ্গে ছবির শুটিংকালীন আবার নতুন বিজ্ঞাপনে কাজ করবেন— বিষয়টি নিয়ে কী বলবেন? নুসরাতকে এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি হেসে উত্তর দিলেন, ‘বিষয়টি আসলে এমন নয়। এটা আসলে ঘটে গেছে। নানা সময়ে, নানা রকম কাজ করতে গেলে এমনটা হয় কখনো কখনো।’ শাকিবের সঙ্গে যেহেতু টানা কয়েক দিন কাজ করছেন, করবেন; সেহেতু নুসরাতের কাছে শাকিব খানকে নিয়েও প্রশ্ন করা হয়। জানতে চাওয়া হয়, শাকিব খান মাঝে ভারতের ছবিতে অভিনয় করলেন, নিজের লুকে পরিবর্তন আনলেন। কাছ থেকে দেখে তার মধ্যে কোনো পরিবর্তন খুঁজে পেলেন কী? উত্তরটা শাকিবের নাম না ধরে একটু ঘুরিয়ে বললেন নুসরাত এভাবে, ‘আমার মনে হয় মানুষ সময়ের সঙ্গে নিজেকে উন্নত করার চেষ্টা করে। শাকিব খানও এর ব্যতিক্রম নন। তাছাড়া সময়ের সঙ্গে তাল-মিল রেখে নিজের মধ্যে পরিবর্তন আনাটাই তো বুদ্ধিমানের কাজ।’ যাহোক, আবার গল্পের প্রসঙ্গ নুসরাতের শাহেনশাহতে ফিরিয়ে আনা হলো। এ ছবিতে যে চরিত্রে অভিনয় করছেন, তাতে নিজেকে মানানসই করে গড়ে তুলতে আপনি কতটা কসরত করেছেন? সোজা কথায় নুসরাত বলেন, ‘শাহেনশাহতে আমার যে খুব একটা পরিবর্তন হয়েছে, তা নয়। কারণ আমি স্বাভাবিক জীবনেও শরীরচর্চা করি, ফিট থাকতে চেষ্টা করি। ফলে চরিত্রের জন্য নিজেকে খুব একটা ভাঙতে হয়নি।’
খানিকটা বিরতির পর আবার ক্যামেরার সামনে দাঁড়ানোর ডাক পড়ল নুসরাতের। কথার শেষ তাই টানতে হলো। শেষ পর্যন্ত বিদায় নেয়ার আগে বলেন, ২৫ তারিখের মধ্যে সব কাজ শেষ করার চেষ্টা করব। কারণ এর কয়েক দিন বাদেই যে থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনের জন্য পরিবারসমেত উড়াল দেব দেশের বাইরে!’