এমপিও ভুক্তির জন্য অহেতুক আন্দোলন করার যৌক্তিকতা নেই বিধি অনুযায়ী এমপিও ভুক্তি কার্যক্রম বাস্তবায়িত করা হবে- অর্থমন্ত্রী মুহিত

আপডেট: জুলাই ৬, ২০১৮, ১:০১ পূর্বাহ্ণ

দিনাজপুর প্রতিনিধি


পার্বতীপুরে নুরুল হোদা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দিচ্ছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত-সোনার দেশ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে ঘোষণা দিয়েছেন যে, বিধি মোতাবেক এমপিও ভুক্তির কার্যক্রম বাস্তবায়িত করা হবে। অহেতুক এমপিও ভুক্তির দাবি করে আন্দোলন করার কোন যৌক্তিকতা নেই। বর্তমান সরকার শিক্ষা বান্ধব। তাই দাবি আদায়ের জন্য কোন আন্দোলনের প্রয়োজন নেই।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার খোলাহাটি শহীদ ক্যাপ্টেন মাহবুব সেনানিবাসের পাশে নুরুল হুদা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ৪তলা ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত একথা বলেন। ২ কোটি ৯৬ লাখ ৩৪ হাজার টাকা ব্যয়ে এ ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, শেখ হাসিনার সরকার যখনই ক্ষমতায় আসে তখনই দেশের সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়। মানুষ তাদের ভাগ্যের পরিবর্তনের সুযোগ পান। কেননা শেখ হাসিনার সরকার দেশের মানুষের কল্যাণ মঙ্গল ও উন্নয়নের জন্য সব ধরনের পদক্ষেপ নেন। মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর বঙ্গবন্ধুর সেই আদর্শকে ধারণ করেই সরকার জনস্বার্থে সব ধরনের কাজ করে। তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে প্রত্যেক শিশুকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে সরকার শিক্ষাখাতে বরাদ্দের হার বৃদ্ধি করেছে। চলতি বছর বাজেটে ৬৫ হাজার ৯৫ কোটি টাকা শিক্ষাখাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেসরকারি বিদ্যালয়গুলো এমপিও ভুক্তির কার্যক্রম বিধি অনুযায়ী সম্পন্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন। অহেতুক এমপিও ভুক্ত করার দাবি নিয়ে আন্দোলন করার কোন যৌক্তিকতা নেই। শিক্ষার গুনগতমান ও বিজ্ঞান ভিত্তিক শিক্ষার প্রসারে সরকার বিভিন্ন পরিকল্পনার মাধ্যমে কাজ করছেন। অর্থমন্ত্রী দেশের চলমান উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় পার্বতীপুর উপজেলাতেও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন।
বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও শক্তি এনার্জি কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুরুল আনামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী অ্যাড. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আগে দেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরে শিশুরা বাড়ি থেকে মায়ের হাতে রান্না করা খাবার খেয়ে পড়াশোনায় মনোনিবেশ করছে। ৬মাসের প্রচেষ্টায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষকদের সহযোগিতায় দুপুরে শিশুদের খাবার ব্যবস্থা সফলভাবে চালু করা সম্ভব হয়েছে। এখন একজন শিশু স্কুলে যায় না, এ ধরনের কোন সংবাদ তার কাছে নেই। শতভাগ শিশু বিদ্যালয়মুখী হয়েছে। ঝরে পড়া রোধে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় প্রাথমিক শিক্ষা সফলভাবে এগিয়ে চলছে। পার্বতীপুর উপজেলার ২শ ৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষার ফলাফল সন্তোষজনক উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সরকার সারাদেশের জরাজীর্ণ বিদ্যালয় ভবন ভেঙে নতুন করে নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছেন। তাই আগামী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার জন্য তিনি সকলকে আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সাবেক সচিব ও শিক্ষা অনির্বান বাংলাদেশের চেয়ারম্যান লুৎফুল্লাহিল মজিদ, জেলা প্রশাসক ড. আ ন ম আবদুছ ছবুর, পুলিশ সুপার মো. হামিদুল আলম, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক মো. আমিনুল ইসলাম সরকার, পার্বতীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম, নুরুল হুদা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইকবাল আহমেদ, প্রাক্তন শিক্ষার্থী ফারিকুল ইসলাম এবং শিক্ষার্থী রেজাউল ইসলাম বক্তব্য দেন। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।