এ কেমন বড় ভাই!

আপডেট: জানুয়ারি ৩১, ২০১৮, ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি


রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ছোট ভাইয়ের প্রেমিকাকে প্রতারণা করে ঢাকা নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে। পৌর এলাকার শ্রীমন্তরপুর গ্রামের এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পৌর মেয়র সালিশ বৈঠক ডেকে অভিযুক্তকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। তবে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা ন্যয়বিচার পান নি বলে অভিযোগ করেন।
ভুক্তভোগী আফজি বালিকা বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। অন্যদিকে অভিযুক্ত মাদারপুর গ্রামের নিজাম উদ্দিনের বড় ছেলে সাহাবুল। ওই ছাত্রীর প্রেমিক মাহাবুল অভিযুক্ত সাহাবুলের ছোট ভাই। তারা দুই ভাই বিভিন্ন ধরনের ব্যবসার সঙ্গে জড়িত।
ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা জানান, মাহাবুলের সঙ্গে দুই বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত ২২ জানুয়ারি সন্ধ্যায় মাহাবুলের মুঠোফোন থেকে তার বড় ভাই সাহাবুল ফোন করে বিয়ের কথা বলে বাসস্ট্যান্ডে ডেকে নেয়। তখন সাহাবুল মেয়েকে জানায়, প্রেমিক মাহাবুল তাকে বিয়ের জন্য ঢাকায় আছে। তার সঙ্গে যেতে বলেছে। কিন্তু ঢাকায় নিয়ে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করেছে বলে তার মেয়ে জানিয়েছে। কিন্তু মাহাবুল বাড়িতেই ছিল। সে কিছুই জানে না। গত সোমবার চাপের মুখে তারা বাড়ি চলে আসে।
এদিকে ঘটনাটি জানাজানি হলে গতকাল মঙ্গলবার পৌরসভার মেয়রের কার্যালয়ে মেয়র মনিরুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে শালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সালিশে মেয়েটি প্রেমিক মাহাবুলকে বিয়ে করতে চাইলেও মাহাবুল বিয়ে করতে রাজি হন নি। পরে মেয়র অভিযুক্ত সাহাবুলকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করে। তাৎক্ষণিকভাবে সাহাবুল ২০ হাজার টাকা পরিশোধ করলেও মেয়েটি টাকা নেয় নি।
মেয়ের বাবা অভিযোগ করে বলেন, অভিযুক্তরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমি ন্যয়বিচার পায় নি। তবে ভয়ের মুখে তিনি আইনগত ব্যবস্থাও নিতে পারছেন না বলে জানান।
মেয়র মনিরুল ইসলাম বাবুর সঙ্গে যোগাযোগ করলে বিষয়টি নিয়ে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হন নি।
এ বিষয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলতাব হোসেন বলেন, এ ধরনের কোন অভিযোগ পাওয়া যায় নি। অভিযোগ পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে এ ধরনের ঘটনায় কেউ সালিশ-মিমাংসা করতে পারেন না।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ