বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

কানসাটে রাস্তায় বাড়ি: কাজে আসছে না ৫১লাখ টাকার ব্যয়ে কালভার্ট

আপডেট: January 28, 2020, 12:30 am

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি


কানসাটে এভাবে রাস্তার উপর নির্মিত বাড়ি-সোনার দেশ

রাস্তার জমি দখল করে ৬টি পরিবার বাড়ি নির্মাণ করে বাস করায় ৫০ হাজার মানুষের পারাপারের জন্য এক মাত্র বাঘিতলা কালভার্টটি দীর্ঘদিন যাবত অকেজো হয়ে পড়ে আছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে শিবগঞ্জ উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের কালভার্ট নির্মাণ প্রকল্পের আওয়াতাধীন ৫০ লাখ ৯৪ হাজার ৫শ টাকা ব্যয়ে কালভার্টটি নির্মাণ করা হয়। এ কালভার্টের উপরে এখন শুকানো হচ্ছে ধান ও খড়ি।
সরজমিনে দেখা গেছে, কানসাট ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাঘিতলায় নির্মাণকৃত কালভার্টের পূর্বদিকে রাস্তা ফাঁকা থাকলেও পশ্চিম দিকে রাস্তা দখল করে বাড়ি নির্মাণ করে বাস করছে ৬টি পরিবার।
এসব বাড়ির মালিকরা হলো জালাল উদ্দীন, তৈয়ব আলী, রুপচান, বারিক, শুকমার ও শফিকুল। তারা সরকারি রাস্তা না ছাড়ায় চলার পথ করতে পারেনি শিবগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন দফতর। ফলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দাদের।
দেখা গেছে, কালভার্টটির পশ্চিম পাশে একটি নুরানী মাদ্রাসার প্র্য়া ১হাজার শিক্ষার্থী ও বাঘিতলা বাজার এলাকার কয়েক হাজার মানুষ শুধু রাস্তার মাঝে ৬টি বাড়ি থাকার কারণে ওই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে পারছে না।
স্থানীয় বাসিন্দা জামাল, মিল্টন ও মতিউর অনেকেই জানান, অবৈধ দখল উচ্ছেদ না হওয়ায় ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত কালভার্টটি জনগণের কোন কাজে আসছে না। বরং জনগণের দুর্ভোগ আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। এ ব্যাপারে তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন।
রাস্তা দখল করে বাস করার কথা স্বীকার করে জাহান, রুপচান ও শফিকুলসহ সবাই বলেন, আমাদের কোন বসতভিটা না থাকায় নিরুপায় হয়ে এখানে বাস করছি। যদি সরকার আমাদের বাসস্থানের ব্যবস্থা করে দেয় আমরা তৎক্ষনাৎ এ স্থান ছেড়ে দিবো।
এ ব্যাপারে কানসাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বেনাউল ইসলাম বলেন, বৃহত্তর জনস্বার্থে দ্রুতই স্থানীয় প্রশাসনে সঙ্গে যোগাযোগ করে এ রাস্তা চালু করা ও তাদের বাসস্থানের ব্যবস্থা করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবো।
শিবগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম বলেন,‘কালভার্ট আছে রাস্তা নাই’এটি মূলত ইউপি চেয়ারম্যানের দেখার কথা। তার পরেও আমি সরজমিন পরিদর্শন করে দ্রুত ব্যবস্থা নেব।