কেরলে প্রবল বর্ষণ এবং ভূমিধসে মৃত ২০

আপডেট: আগস্ট ১০, ২০১৮, ১:০০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে বিপর্যস্ত কেরল। সকাল থেকেই প্রচ- বৃষ্টি শুরু হয়েছে মল্লপূরম, কন্নুর, ওয়েল্যান্ডে। শুধুমাত্র ইডুক্কিতেই মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। মল্লপূরমে মৃত্যু হয়েছে পাঁচ জনের। কুন্নুরে দু’জন এবং ওয়েল্যান্ডে তিন জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। এখনও নিখোঁজ বেশ কয়েকজন। তাঁদের সন্ধানে তল্লাশি চলছে। প্রচ- বৃষ্টির কারণে জলস্তর বেড়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার সকালেই ইডুক্কি জলাধার থেকে জল ছাড়তে শুরু করে।
২৬ বছর পর এই প্রথম ইডুক্কি জলাধার থেকে জল ছাড়া হল। এতটাই বৃষ্টি হয়েছে কেরলে। যার জেরেই জলাধার লাগোয়া অধিকাংশ গ্রাম ভেসে গিয়েছে। জলের তোড়ে ধস নেমেছে একাধিক এলাকায়। একই পরিবারের পাঁচ জন মারা গিয়েছেন ইডুক্কির আদিমালি শহরে। ধ্বংস স্তূপের মধ্য থেকে দু’জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।
এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে ইডামলায়ার জলাধার থেকে ৬০০ কিউসেক জল ছাড়া হয়। প্রচ- বৃষ্টির কারণে জলাধারে জলস্তর ১৬৯.৯৫ মিটার বেড়ে গিয়েছিল।
যা ধারণ ক্ষমতার থেকে অনেকটাই বেশি। এই জলাধারের জলধারণ ক্ষমতা ১৬৯ মিটার। অন্যদিকে ইডুক্কি জলাধারের জলস্তর ৫০ ফুট বেশি হয়ে যাওয়ায় লাল সতর্কতা জারি করা হয়। তারপরেই জল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেয় সেচদপ্তর।
প্রচ- বৃষ্টির জেরে কেরলের কোঝিকোড়ে, ওয়েল্যান্ডে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। জলমগ্ন হয়ে পড়েছে অধিকাংশ এলাকা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী নামানো হয়েছে কোঝিকোড়ে এবং মধ্য কেরলের বিভিন্ন জায়গায়।
তথ্যসূত্রধ আজকাল