খেতে আগুন দেওয়া সেই কৃষকের ধান কেটে দিলেন শিক্ষার্থীরা

আপডেট: মে ১৬, ২০১৯, ১২:৩৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার পাইকড়া ইউনিয়নের বানকিনা এলাকার কৃষক আব্দুল মালেক ধানের কম দাম ও শ্রমিক সংকটের প্রতিবাদে ধানখেতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছিলেন। এবার তার খেতের ধান কেটে দিয়েছেন বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থীরা। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে জেলার সরকারি সা’দত কলেজ, মাওলানা মোহাম্মদ আলী কলেজ, লায়ন নজরুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজসহ বেশ কয়েকটি কলেজের শিক্ষার্থীরা একসঙ্গে আব্দুল মালেকের খেতের ধান কেটে দেন। আগুন দেয়া প্রায় এক বিঘা (৫৬ শতাংশ) জমিতে ১২-১৩ জন শিক্ষার্থী সম্মিলিতভাবে ধান কেটে দেন।
এর আগে ১২ মে ওই কৃষক শ্রমিক সংকট, শ্রমিকের মজুরি বেশি এবং ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে নিজের পাকা ধানখেতে আগুন দিয়ে প্রতিবাদ জানান। মালেকের এই প্রতিবাদে বিস্ময় প্রকাশ করেন এলাকার অধিকাংশ কৃষক।
লায়ন নজরুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী রাফি বলেন, ‘সংবাদমাধ্যমে জানতে পারি শ্রমিকের মজুরি বেশি হওয়ায় ধানখেতে আগুন ধরিয়ে প্রতিবাদ করেছেন কৃষক আব্দুল মালেক। মানবিক দিক বিবেচনা করে আমরা কৃষক মালেকের খেতের ধান কেটে দিয়েছি।’
মাওলানা মোহাম্মদ আলী কলেজের শিক্ষার্থী আল আমিন বলেন, ‘ধানের দামের তুলনায় ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি অনেক বেশি। প্রায় দেড়মণ ধানের দাম দিয়ে একজন ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি দিতে হচ্ছে। সেদিক বিবেচনা করে আমরা বিভিন্ন কলেজ থেকে এসেছি কৃষক মালেককে সহযোগিতা করার জন্য।’
কৃষক আব্দুল মালেক বলেন, ‘আসলে কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে। শ্রমিক না পাওয়ায় ও ধানের দাম কম হওয়ায় প্রতিবাদে খেতে আগুন দেই। শিক্ষার্থীরা ধান কেটে দেয়ায় আমি অনেক খুশি।’
প্রসঙ্গত, কৃষক আব্দুল মালেক ছাড়াও গত সোমবার (১৩ মে) বিকালে জেলার বাসাইল উপজেলার কাশিল গ্রামের কৃষক নজরুল ইসলাম তার নিজের বোরো ধানখেতে আগুন ধরিয়ে দেন। পরে অন্য কৃষকরা এসে আগুন নিভিয়ে ফেলেন।
তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন