খেলোয়াড়দের স্বাধীনভাবে খেলতে দিতে চান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৮, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আজ বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি মিশনে মাঠে নামছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু আগের দিন সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ঠিক ছিলো না কে নেতৃত্ব দিচ্ছেন এ সিরিজে। তবে শেষ পর্যন্ত টেস্ট সিরিজে নেতৃত্ব দেওয়া মাহমুদউল্লাহর উপরই আস্থা রেখেছেন বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। আর দেরিতে নিজেকে অধিনায়ক জানায় তার প্রভাব মাঠে পড়বে না বলেই জানান রিয়াদ। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগসহ (বিপিএল) ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত নেতৃত্ব দেওয়ার অভিজ্ঞতা থেকেই খেলোয়াড়দের কাছ থেকে সেরাটা বের করে নেবেন বলেই প্রত্যয় প্রকাশ করেন অধিনায়ক।
বিপিএলে গত দুই আসরে খুলনা টাইটান্সের অধিনায়ক ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। এর আগের আসরগুলোতেও অধিনায়ক হিসেবেই খেলেছেন তিনি। সাদামাটা দল নিয়ে লড়াই করার অভিজ্ঞতাটা বেশ ভালোভাবেই রয়েছে তার। তাই এক ঝাঁক তরুণদের দিয়ে গড়া বাংলাদেশ দলের নেতৃত্বটা ঠিক ভাবেই দিতে পারবেন বলে আশা করছেন তিনি। তরুণদের উপর প্রত্যাশার চাপটা না দিয়ে তাদের স্বাধীনভাবে খেলতে দেবেন বলেই জানান মাহমুদউল্লাহ।
‘যেহেতু আমি দায়িত্ব পেয়েছি আমি আমার তরফ থেকে চেষ্টা করব। যেভাবে চেষ্টা করি খেলোয়াড়দের কাছ থেকে সেরাটা বের করে নেওয়ার। একই জিনিসটাই চেষ্টা করব। আপনি বিপিএলের কথা বললেন, আমি সব সময় বিশ্বাস করি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আপনি যদি খেলোয়াড়দের মোটিভেশন ও স্বাধীনতাটা না দিতে পারেন, পারফর্ম করার সুযোগ সেক্ষেত্রে অনেক কম। আমি চেষ্টা করব মাঠে কিংবা মাঠের বাইরে জিনিসটা করার।’ – নিজের নেতৃত্ব নিয়ে এমনটাই বললেন মাহমুদউল্লাহ।
তবে লঙ্কানদের বিপক্ষে ঘোষিত দলে এবার সুযোগ পেয়েছেন ৬ জন নতুন মুখ। সেক্ষেত্রে একাধিক খেলোয়াড়েরই অভিষেক হয়ে যাচ্ছে। তাদেরকে যতটা সম্ভব চাপ কম দিতে চান অধিনায়ক, ‘আমাদের দলে যেহেতু নতুন মুখ আছে বেশ কজন। ওদের উপর যাতে কম চাপ দেওয়া যায়। ওদেরকে পারফর্ম করার সুযোগটা দেব। সেটা ছোট ইনফরমেশনের মাধ্যমে হোক। উপস্থিত বুদ্ধির মাধ্যমে হোক। দলে বেশ কজন অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছে। আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করব সেরা ক্রিকেটটা যেন খেলতে পারি।’