চাঁদা না দেয়ায় রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষের কক্ষে ভাঙচুর, মামলা দায়ের

আপডেট: জুন ১, ২০১৮, ১:১৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


চাঁদা না দেয়ায় রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষের কক্ষে ভাঙচুর চালিয়ে তছনছ করেছে সন্ত্রাসীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে অধ্যক্ষের অনুপস্থিতিতে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ক্রেস্ট, আলমারির মধ্যে রাখা কাচের তৈজসপত্র এবং টেবিল-চেয়ার ভাঙচুর করে তারা। এ ঘটনায় কলেজের পক্ষ থেকে সাতজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামাসহ মোট ২৫ জনের বিরুদ্ধে বোয়ালিয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর একটার দিকে ছাত্র পরিচয়ধারী ২০ থেকে ২৫ জনের একদল নেতাকর্মী কলেজ অধ্যক্ষের কক্ষে প্রবেশ করেন। এসময় কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর তারা ঘরের মধ্যে রাখা ক্রেস্ট, কাচের তৈরি তৈজসপত্র ও চেয়ার- টেবিল ভাঙচুর করতে থাকতে। কয়েক মিনিট ধরে এ ভাঙচুর চালান। এ সময় ক্যাম্পাসে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে কলেজের অধ্যক্ষ তখন ওই কক্ষে ছিলেন না।
এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান জানান, গত বুধবার কয়েকজন আমার কাছে এসে নেতা জামিল আক্তার রতনের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তারা ক্ষুব্ধ হয়ে চলে যায়। পরে আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে এসে সেই চাঁদা না পাওয়ার জের ধরে জুয়েল ও স¤্রাটের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একটি দল কক্ষে এসে ভাঙচুর চালায়।
অধ্যক্ষ জানান, ‘ঘটনার সময় আমি ক্লাসে ছিলাম। শুনেই এসে দেখি ভাঙচুর করে তারা চলে গেছে। পরে আমরা এ বিষয় নিয়ে শিক্ষকদের সাথে জরুরি মিটিং করি। মিটিং থেকে এ ন্যক্কারজনক ঘটনার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানানো হয়। ঘটনার পরপরই ২৫ জনের নামে বোয়ালিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ’
ঘটনার সিসিটিভির ফুটেজেও দেখা যায়, ২০ থেকে ২৫ জনের একদল নেতাকর্মী অধ্যক্ষের কক্ষে প্রবেশ করে কিছুক্ষণ বসে থাকার পর ভাঙচুর শুরু করে। এক মিনিট ভাঙচুর করার পর তারা চলে যায়।
বোয়ালিয়া থানার ওসি আমানউল্লাহ আমান জানান, এ ঘটনায় কয়েকজনের নামসহ মোট ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। মামলার আসামিদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।
ছাত্রলীগের মিছিল সমাবেশ
চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষের কক্ষে আজ বৃহষ্পতিবার দুপুর ১২.৩০ টায় রাজশাহী ২০-২৫ জন সন্ত্রাসী বাহিনী ভাংচুর করে। এহেন ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী কলেজ শাখার বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিল শেষে কলেজের প্রশাসন ভবনের সামনে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। পথসভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী কলেজ শাখার সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম। এছাড়াও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী কলেজ শাখার সকল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী কলেজ শাখার সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম বলেন, এহেন ন্যক্কারজনক কর্মকা- কোনো ছাত্রের পক্ষে সম্ভব নয়। প্রকৃতপক্ষে তাদের কোনো ছাত্রত্ব নেই ও তারা কোনো ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মী হতে পারে না। কেননা তা না হলে তারা কলেজের অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারত না।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ