চাঁপাইনবাবগঞ্জে জমির বায়না করার পরও জমি থেকে উচ্ছেদ

আপডেট: জুলাই ২১, ২০১৯, ১:০৯ পূর্বাহ্ণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি


চাঁপাইনবাবগঞ্জের এক কৃষক জমি বায়না করার পরও জমি রেজিস্ট্রি না দিয়ে উচ্ছেদ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগির স্ত্রী বাদী হয়ে ২০১৯ সালের ৮ জুন নবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় এজাহার দায়ের করেন।
এজাহার মূলে প্রকাশ, সদর উপজেলার ১৫৭ নম্বর চরবাগডাঙ্গা মৌজার ১৬২৩ নম্বর খতিয়ান, আরএস ৪১ নম্বর দাগে প্রজা হিসেবে আশরাফুল এবং তার ওয়ারিশরা ১.২৭০০ শতক জমির মালিক। তার মধ্যে .২৮৮৭৫০ একর জমি ২০১২ সালের ১২ আগস্ট ১৫০ টাকার নন-জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের বাখর আলী বকরিপাড়া গ্রামের এনামুল হক বায়না নামা দলিল এওয়াজে জমির মালিক আশরাফুল ইসলামকে ১ লাখ টাকা প্রদান করেন। ওই জমিতে বাড়ি নির্মাণ করার অনুমতি দেন আশরাফুল। পরবর্তীতে বাকি টাকা দিয়ে জমি রেজিস্ট্রি করার কথা এনামুল হক জমির মালিককে বললে তিনি টালবাহানা করতে থাকেন এবং ১ লাখ টাকা আত্মসাত করেন। বায়নার টাকা ফেরত চাইতে গেলে এনামুল ও তার স্ত্রীকে হুমকি প্রদান করেন আশরাফুল। একপর্যায়ে ২০১৯ সালের ৫ মে আশরাফুল তার নির্মিত বাড়ি ভাঙচুর করে তাকে উচ্ছেদ করে।
এঘটনায় এনামুলের স্ত্রী নাদিরা বেগম বাদী হয়ে আশরাফুলকে আসামী করে নবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।
এব্যাপারে নবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার সাব-ইন্সপেক্টর আবদুস সালাম মামলা দায়েরের বিষয়টি স্বীকার করেন।