চিকিৎসকের সঙ্গে অ্যাপয়েন্টমেন্টের পূর্বে যা করা উচিত নয়

আপডেট: জুন ৫, ২০১৮, ১:৪৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


শারীরিক পরীক্ষা বা কমন টেস্ট, আপনি যে কারণেই চিকিৎসকের কাছে ভিজিট করেন না কেন, অ্যাপয়েন্টমেন্টের পূর্বে কিছু বিষয়ে সতর্ক থাকা উচিত হবে। চিকিৎসকের কাছে ভিজিটের পূর্বে যা করা উচিত এবং যা করা উচিত নয়, এ নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের আজ থাকছে প্রথম পর্ব।
* ব্লাড প্রেসার টেস্টের পূর্বে কফি পান করবেন না : যদি আপনি নিয়মিত চিকিৎসকের কাছে ভিজিট করেন, আপনি সম্ভবত আপনার ব্লাড প্রেসার মাপতে যান। তাই আপনার অ্যাপয়েন্টমেন্টের পূর্বে কফি পরিহার করা সর্বোত্তম, কারণ এটি ফলাফলে প্রভাব ফেলতে পারে। ইউনিভার্সিটি অব পিটসবার্গ মেডিক্যাল সেন্টারের ফ্যামিলি মেডিসিনের ভাইস চেয়ারম্যান জেমস ডুয়ার বলেন, ‘কফি বা অন্যান্য ক্যাফেইন যেমন- এনার্জি ড্রিংক অথবা কোলা পানের এক ঘণ্টার মধ্যে ব্লাড প্রেসার মাপলে সংখ্যা কৃত্রিমভাবে উচ্চ হতে পারে। তামাকজাত দ্রব্য ও ওভার-দ্য-কাউন্টার ডিকনজেস্ট্যান্ট মেডিকেশনের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।’
* রক্ত পরীক্ষার পূর্বে উচ্চ-চর্বি সমৃদ্ধ খাবার খাবেন না : রক্ত পরীক্ষার পূর্বে উচ্চ চর্বি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া উচিত নয়। ইউটি হেলথের অন্তর্ভুক্ত ম্যাকগভার্ন মেডিক্যাল স্কুলের ফ্যামিলি অ্যান্ড কমিউনিটি মেডিসিনের সহযোগী অধ্যাপক দিপা আইয়েনগার বলেন, ‘যদি আপনি নিয়মিত উচ্চ চর্বি সমৃদ্ধ খাবার না খান, তাহলে রক্ত পরীক্ষার পূর্বেও খাবেন না, যাতে আপনার ফিজিশিয়ান আপনার স্বাস্থ্যের নির্ভুল চিত্র পেতে পারেন।’ রক্ত পরীক্ষার পূর্বে অস্বাভাবিক বেশি ভোজন ভুল ফলাফলের কারণ হতে পারে। সাধারণত আপনার ভোজন পরিহার করার প্রয়োজন হবে। ডা. ডুয়ার বলেন, ‘যদি আপনার রক্ত পরীক্ষা কোলেস্টেরল বা অন্যান্য চর্বি পরিমাপ সংক্রান্ত হয়, তাহলে পরীক্ষার আট থেকে ১০ ঘণ্টা পূর্বে যেকোনো ক্যালরি বর্জন করা সর্বোত্তম। ভোজনের পর আপনার রক্ত শর্করা ও রক্তে কিছু চর্বি (ট্রাইগ্লিসেরাইড) সামান্য বেড়ে যেতে পারে। নিয়মিত ব্লাড ওয়ার্কআপের পূর্বে আপনাকে অনাহারে থাকতে বলা হতে পারে।’
* কোনো ফিজিক্যালের পূর্বে প্রচুর পানি পান করুন : সাধারণত কোনো চেকআপের জন্য চিকিৎসক দেখানোর পূর্বে হাইড্রেটেড থাকা ভালো। ডা. ডুয়ার বলেন, ‘কোনো ফিজিক্যালের সময় পর্যাপ্ত হাইড্রেটেড থাকলে আপনার পালস ও ব্লাড প্রেশার সর্বোত্তম থাকে।’ তিনি যোগ করেন, ‘যদি আপনি রক্ত পরীক্ষা বা মূত্র পরীক্ষার সময় হালকা ডিহাইড্রেটেড থাকেন, তাহলে টেস্টিংয়ে কৃত্রিম অস্বাভাবিকতা সৃষ্টি হতে পারে- যার ফলে বিভ্রান্তিকর ফলাফল আসবে।’ শারীরিক পরীক্ষা ছাড়াও আপনার প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করা উচিত।
* কোনো চেকআপের পূর্বে স্বাভাবিকভাবে খান : আপনি সম্ভবত আপনার চিকিৎসককে আপনার সর্বোত্তম স্বাস্থ্য দেখাতে চান, কিন্তু এর জন্য কোনো বাৎসরিক অ্যাপয়েন্টমেন্টের পূর্বে খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন করার প্রয়োজন নেই। যদি অ্যাপয়েন্টমেন্টের কিছুদিন পূর্বে অস্বাস্থ্যকর ডায়েট থেকে সরে আসেন, তাহলে তা সম্ভবত আপনার স্বাস্থ্যের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। ডা. ডুয়ার বলেন, ‘কোলেস্টেরল ও রক্ত শর্করা পরিবর্তন করতে দীর্ঘসময় ডায়েটিং প্রয়োজন, তাই অ্যাপয়েন্টমেন্টের কয়েকদিন পূর্বে ডায়েটারি পরিবর্তনে স্বাস্থ্যের তেমন উন্নয়ন হবে না।’ স্বাস্থ্যের পরিবর্তন হতে দীর্ঘসময় লাগে, তাই যত বেশি সম্ভব স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়াই সর্বোত্তম।
* অসুস্থতা পরীক্ষার পূর্বে ঠান্ডার ওষুধ খাবেন না : যখন আপনি অসুস্থ হন, আপনার চিকিৎসক কোনো ওভার-দ্য-কাউন্টার ওষুধ ছাড়া আপনার উপসর্গ মূল্যায়ন করতে চাইবেন। ডা. আইয়েনগার বলেন, ‘যদি সম্ভব হয় ঠান্ডার কোনো ওষুধ বা ওভার-দ্য-কাউন্টার ওষুধ গ্রহণ করবেন না, যাতে আপনার চিকিৎসক অস্বাভাবিক কোনোকিছু নির্ণয় করতে পারেন ও আপনার অবস্থা মূল্যায়ন করতে পারেন। কিছু ওষুধ ব্লাড প্রেশার বৃদ্ধি করতে পারে এবং আপনার ফিজিশিয়ান জানবে না যে ওষুধ নাকি অসুস্থতার কারণে এমনটা হয়েছে।’ যদি ওষুধ গ্রহণ ব্যতীত থাকা অসম্ভব হয়, তাহলে চালিয়ে যেতে পারেন- আপনার চিকিৎসক চায় যে আপনি ভালো অনুভব করেন এবং উপসর্গ বোঝার জন্য তিনি আপনার ওপর নির্ভর করবেন, তাই চিকিৎসককে অবশ্যই জানাবেন আপনি কোন ওষুধ গ্রহণ করেছেন। ডা. ডুয়ার বলেন, ‘যদি আপনি কোনো অসুস্থতা উপশমের জন্য ওষুধ সেবন করেন, তাহলে চিকিৎসককে জানানো প্রয়োজন যে এটি সাহায্য করেছে কিনা অথবা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে কিনা।’
* ডার্মাটোলজিস্টের কাছে যাওয়ার পূর্বে মেনি পেডি করবেন না : ত্বক বিশেষজ্ঞরা আপনার পুরো শরীর দেখেন, যেমন- আপনার নখ, তাই নখকে পলিশমুক্ত রাখা উচিত। বোস্টনের ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হসপিটালের ত্বক বিশেষজ্ঞ সারিনা এলমারিয়াহ বলেন, ‘ডার্মাটোলজিস্টের কাছে ভিজিটের পূর্বে নেইল পলিশ অথবা অ্যাক্রিলিক নেইলস ব্যবহার করবেন না।’ নখের ফাঙ্গাস সমস্যা ছাড়াও আপনার নখের সামান্য ক্লু রক্তস্বল্পতা, ডায়াবেটিস ও এমনকি হৃদরোগের মতো বড় স্বাস্থ্য সমস্যা নির্দেশ করতে পারে। কভার-আপ ও আই শ্যাডোও বর্জন করুন, যাতে চিকিৎসক সহজেই আপনার মুখের ওপর ত্বকের সমস্যা দেখতে পান। ডা. এলমারিয়াহ বলেন, ‘মেকাপ করবেন না অথবা প্রয়োজনে মেকাপ দূর করুন। কিন্তু সানস্ক্রিন বা লোশনের ব্যবহার ঠিক আছে।’