চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সাজাপ্রাপ্ত আসামির আত্মসমর্পণ, জেলখানায় প্রেরণ

আপডেট: অক্টোবর ৮, ২০১৯, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহীর চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান তালুকদার গত ১ সেপ্টেম্বর একটি মাদকের মামলায় গোদাগাড়ী থানার আচুয়া গ্রামের একরামুল হকের ছেলে মিলন হোসেনের বিরুদ্ধে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদ- ও ৫ হাজার টাকা অর্থদ- প্রদান করেন। অনাদায়ে আরো এক মাস বিনাশ্রম কারাদ-ের আদেশ দেন।
রায় ঘোষণার দিন আসামি পলাতক থাকায় গতকাল সোমবার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করে জামিনের প্রার্থনা করেন। আদালত আসামির জামিন নামঞ্জুর করে জেলখানায় প্রেরণের নির্দেশ দেন।
আদালত সূত্রে জানা যায়, রাজশাহীর গোদাগাড়ী হতে চাঁপাইনবাবগঞ্জগামী মহাসড়কের আচুয়া ভাটা নামক স্থানে আসামির কাছ থেকে ২০১৮ সালের ১৭ জুন একটি সাদা পলিথিনে ২০ গ্রাম হেরোইন পাওয়া যায়। গোদাগাড়ী মডেল থানার এস আই মজিবুর রহমান আসামিকে ঘটনাস্থল থেকে তার দেহ তল্লাশি করে হেরোইন পান এবং আসামিকে সঙ্গে সঙ্গে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে এসে মামলা দায়ের করেন। আসামির বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের ১১ অক্টোবর অভিযোগ গঠন করা হয়। চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান তালুকদার সাত জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে গত ১ সেপ্টেম্বর মামলাটির রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়। এই আসামি সাজা মাথায় নিয়ে গতকাল আদালতে আত্মসমর্পণ করে আপিলের শর্তে জামিন প্রার্থনা করেন। বিচারক তার জামিনের প্রার্থনা বাতিল করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।