ছুটির দিনে জমেছে আয়কর মেলা : আদায় ৪৩ লাখ

আপডেট: নভেম্বর ১৬, ২০১৯, ১:০৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


শুক্রবারেও ছিলো আয়কর মেলায় প্রদানকারীদের ভিড় -সোনার দেশ

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে জমেছে আয়কর মেলা। গতকাল সকাল থেকেই মেলায় ছিলো করদাতাদের ভিড়। তাই বন্ধের দিন হলেও প্রভাব পড়েনি মেলায়। কর্তৃপক্ষ বলছে, আগে থেকেই জানানো হয়েছিল কর মেলা সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও চলবে। তাই এতো ভিড়। মেলায় আয়কর দেয়া ও রিটার্ন দাখিলসহ বিভিন্ন সেবাগ্রহণ করছেন করদাতারা।
রাজশাহী কর অঞ্চল সূত্রে জানা গেছে, কর অঞ্চল রাজশাহীর ৬টি সার্কেলে ১ হাজার ২৩৯টি আয়কর রিটার্ন জমা পড়েছে। রিটার্নের সঙ্গে সরকারি কোষাগারে জমাকৃত রাজস্বের পরিমাণ ছিল ৪৩ লাখ ৬ হাজার ৩০১ টাকা। এছাড়া নতুন ই-টিআিইএন রেজিস্ট্রেশন হয়েছে ৩৫ টি। এছাড়া সেবাগ্রহীতার সংখ্যা ৪ হাজার ৫০০ জন। তবে গত দিনের তুলনায় বেড়ে ১ হাজার ৫০০ জন। শুধু তাই নয়, অনেক করদাতা অনলাইনেও আয়কর রিটার্ন দাখিল করছেন। এই মেলার কার্যক্রম আরো পাঁচ দিন চলবে।
কর মেলায় আসা নগরীর সুলতানাবাদ এলাকার সাইফুল ইসলাম বলেন, তিনি মূলত মেলায় এসেছেন করের অধিক্ষেত্র সম্পর্কে ধারণা নিতে। করের আওতায় পড়লে তিনি কর দেবেন। এখানে আসার পর তিনি কর সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা পেরেছেন বলেও জানান।
মেলায় উপস্থিত হয়ে কর প্রদানকারী ব্যবসায়ী জমশেদ আলী বলেন, সাধারণত অন্য সময় কর দেয়াটা একটু সমস্যা মনে হয়। কর মেলায় এলে বাড়তি বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যায়। এছাড়া কর কর্মীরা অনেক সহায়তা করে। এই সময়গুলো আয়কর কর্মকর্তারা বিশেষ সেবা দিয়ে থাকেন।
জানা গেছে, রাজশাহীতে সপ্তাহব্যাপি চলমান আয়কর মেলায় সেবাগ্রহীতারা রিটার্ন দাখিল ও অনলাইন কর শনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন) সনদ সংগ্রহসহ বিভিন্ন ধরনের সেবা পাচ্ছেন।
অঞ্চল রাজশাহীর উপ-কর কমিশনার (সদর দফতর-প্রশাসন) আবু নসর মো. মাহবুবুজ্জামান জানান, দ্বিতীয় দিনে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত উৎসবমুখর পরিবেশে করদাতারা আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন। গত বৃহস্পতিবারের তুলনায় ১৫শ’ সেবাগ্রহীতার সংখ্যা বেড়েছে। আয়করদাতাদের রিটার্ন ফরম পূরণে সহযোগিতা করা হচ্ছে। ব্যাংক বুথে আয়কর জমা দেয়া যাচ্ছে। এছাড়া মুক্তিযোদ্ধা, নারী ও প্রতিবন্ধী করদাতার জন্য রয়েছে আলাদা ব্যবস্থা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ