জলবায়ু পরিবর্তনে মাটির অম্লমানের উপর চুনের প্রভাব শীর্ষক সেমিনার

আপডেট: জুন ২০, ২০১৯, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট আয়োজিত সেমিনারে অতিথিরা সোনার দেশ

জলবায়ু পরিবর্তনে মাটির অম্লমানের উপর চুনের প্রভাব শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার রাজশাহী আঞ্চলিক কৃষি তথ্য অফিসের কনফারেন্স রুমে এর আয়োজন করে আঞ্চলিক মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট রাজশাহী। অর্থায়নে ছিলেন, ব্রাক।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, মৃত্তিকা আঞ্চলিক কার্যালয় রাজশাহীর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা কৃষিবিদ ড. মো. আফছার আলী। সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. শামছুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন, প্রভার নির্বাহী পরিচালক আবু এম মুসা, মৃত্তিকার আঞ্চলিক গবেষণাগারের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আইয়ুব-উর-রহমান, বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের গবেষক ড. শাখাওয়াত হোসেন।
সেমিনারটি সঞ্চালনা ও উপস্থাপনা করেন, মৃত্তিকা আঞ্চলিক কার্যালয় রাজশাহীর সিনিয়র বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা খন্দকার ড. মো. নুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন, আমিনুল ইসলাম। এরপর খন্দকার ড. মো. নুরুল ইসলাম প্রজেক্টরের মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনে মাটির অম্লমানের উপর চুনের প্রভাবসহ বৈজ্ঞানিক ভাবে কৃষি কার্যক্রম তুলে ধরেন। পরে বক্তারা জলবায়ু পরিবর্তনে মাটির অম্লমানের উপর চুনের প্রভাবসহ বিভিন্ন কৃষি বিষয় নিয়ে আলোকপাত করেন। সেমিনারে মাটির অম্লমানের উপর চুন ব্যবহারের সুফলের কথা জানান, গোমস্তাপুর উপজেলার আড্ডা গ্রামের কৃষক মো. তৈইবুর রহমান। পরিশেষে সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে সেমিনারের সমাপ্তি ঘোষণা করেন, সেমিনারের সভাপতি কৃষিবিদ ড. মো. আফছার আলী।
প্রধান অতিথি শামসুল হক বলেন, মা ভালো হলে যেমন সন্তান ভালো হয়, তেমনি মাটি ভালো হলে ফসলও ভালো হয়।