জানুয়ারিতে দুই বাংলায় জয়ার ‘বিজয়া’!

আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০১৮, ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মাত্র কিছুদিন আগে মুক্তি পেয়েছে জয়া আহসানের ‘দেবী’। বেশ প্রশংসিত এ চলচ্চিত্রের পর এই অভিনেত্রী ব্যস্ত হয়েছেন ‘বিউটি সার্কাস’ নিয়ে। আশা করা হচ্ছে, আগামী বছরের প্রথমদিকে পর্দায় আসবে ছবিটি।
তবে জয়া ভক্তদের জন্য আরও একটি সুখবর আছে। এর আগেই মুক্তি পাচ্ছে তার আরও একটি চলচ্চিত্র।
আর এটি আসছে জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহে। ছবির নাম ‘বিজয়া’। হ্যাঁ, কলকাতার বহুল প্রত্যাশিত এ ছবিটি একই মাসে বাংলাদেশেও মুক্তি পাচ্ছে। সাফটা চুক্তির আওতায় এটি আনা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন পরিবেশক ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ।
তিনি বলেন, ‘‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত ‘বিসর্জন’-এর সিক্যুয়েল এটি। প্রথম ছবিটি ব্যাপক প্রশংসিত। সেটা আমরা শিগগিরই দেশের পর্দায় দেখাবো। ইতোমধ্যে এর সেন্সরও হয়েছে। আমরা চাইছি, পরের ছবিটিও (বিজয়া) এ দেশের দর্শক দেখুক। এজন্য আমরা ছবিটি বাংলাদেশ আনছি।’’
কলকাতায় আগামী ৪ জানুয়ারি মুক্তি পাবে ‘বিজয়া’। আর বাংলাদেশে এটি মুক্তির সম্ভাব্য তারিখ ধরা হয়েছে একই মাসের তৃতীয় শুক্রবার (১৮ জানুয়ারি)।
এদিকে জয়া আহসান জানান, ‘বিসর্জন’র গল্প যেখানে শেষ হয়েছিল, ঠিক সেই জায়গা থেকে শুরু হয়েছে ‘বিজয়া’ ছবির গল্প। চলচ্চিত্র দুটি পরিচালনা ও অভিনয় করছেন কৌশিক গাঙ্গুলি। জয়ার সঙ্গে কেন্দ্রীয় চরিত্রে আছেন আবির চট্টোপাধ্যায়।
‘বিসর্জন’-এর গল্প ছিল সীমান্ত-সংলগ্ন এলাকার একজন হিন্দু বিধবা পদ্মাকে নিয়ে। অল্প বয়সে বিধবা হওয়ায় তার আবার বিয়ে হয় গণেশ ম-লের সঙ্গে। এরই মধ্যে ইছামতী নদীতে দুর্গা নিরঞ্জনের সময় নাসির নামের এক ব্যক্তি নদীতে পড়ে যায়। সে চোরাকারবারি। ভাসতে ভাসতে চলে আসে বাংলাদেশে। তার প্রাণ রক্ষা করে পদ্মা। নিজের বাড়িতে নাসিরকে আশ্রয় দেয়। নাসিরের সঙ্গে পদ্মার ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পদ্মা চেষ্টা করে কীভাবে নাসিরকে ভারতে ফেরত পাঠানো যায়। কিন্তু এরই মধ্যে তিনজনের জীবনে আসে নানা পরিবর্তন।
এদিকে গত সপ্তাহে জয়া কলকাতায় গিয়েছিলেন ‘বিজয়া’ ছবির পোস্টার লঞ্চ অনুষ্ঠানে। এতে উপস্থিত ছিলেন আবির চট্টোপাধ্যায়, পরিচালক কৌশিক গাঙ্গুলি ও গৌতম ঘোষ।
নতুন ছবিটি প্রসঙ্গে জয়া আহসান বললেন, ‘নাসির, পদ্মা ও গণেশের গল্প সবার হৃদয় জয় করলেও কিছু প্রশ্নের উত্তর পাওয়া বাকি আছে এখনও। কিছু থমকে দাঁড়ানো সময়ের সম্মুখীন হওয়া বাকি আছে এখনও। বিসর্জনের রেশ নিয়ে আবারও আমরা বিজয়াতে।’-বাংলা ট্রিবিউন