জাবি উপাচার্য কর্তৃক সাংবাদিক লাঞ্ছিতের প্রতিবাদ

আপডেট: আগস্ট ২৫, ২০১৯, ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি


জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত দুই সাংবাদিক লাঞ্ছনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (রাবিসাস)। গতকাল শনিবার বিকেলে রাবিসাসের সভাপতি সুজন আলী এবং সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ সাইফের স্বাক্ষরিত এক যৌথ বিবৃতিতে এ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।
বিবৃতিতে নেতারা বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকরা ক্যাম্পাস এবং দেশে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে থাকে। পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দ্বারা তারা যে লাঞ্ছণার শিকার হয়েছে তাতে রাবিসাস উদ্বিগ্ন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের মতো একজন দায়ত্বশীল ব্যক্তির কাছ থেকে এমন আচরণ কারো কাম্য নয়। অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের এ ধরনের আচরণ দেশে নিরপেক্ষ ও স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য বাঁধা। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের সাংবাদিকতা পেশায় আসতে অনাগ্রহ তৈরি করবে। উপাচার্যের এমন আচরণের আমরা তীব্র নিন্দা জানাই।’
প্রসঙ্গত, ২২ আগস্ট জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম আলো’র প্রতিনিধি মাইদুল ইসলাম ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিদিনের প্রতিনিধি শরিফুল ইসলাম সীমান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান বিভিন্ন বিষয় নিয়ে উপাচার্যের বক্তব্য নিতে যান। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের দুই কোটি টাকা ছাত্রলীগের মাঝে বণ্টনের বিষয়ে জানতে চাইলে উপাচার্য সাংবাদিকদের সাথে খারাপ আচরণ করেন । এক পর্যায়ে উপাচার্য প্রক্টরকে ডেকে তাদের বিরুদ্ধে ছাত্র-শৃঙ্খলা বিধিতে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নিতে বলেন এবং তাদের বিভাগের সভাপতিকে ডেকে পাঠান এবং সাংবাদিকদ্বয়ের ছবি তুলে রাখেন। দীর্ঘ দুই ঘন্টা ধরে তাদেরকে আটকে রেখে নানা রকম হুমকি-ধামকি দেন।