জালিয়াতির মাধ্যমে জমি রেজিস্ট্র্রি নেয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

আপডেট: ডিসেম্বর ২০, ২০১৭, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

দিনাজপুর প্রতিনিধি


দিনাজপুরে ভূমিদস্যুরা জালিয়াতির মাধ্যমে ৫৩ শতক জমি রেজিস্ট্রি নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে। এক্ষেত্রে দলিলে ভূয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ও জন্ম সনদ ব্যবহার করে করেছে ভূমিদস্যুরা।
গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টায় আশিকুর রহমান অপু দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে াসেব কথা বলেন। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমাদের এয়াজ বদল দলিল মুলে প্রাপ্ত বীরগঞ্জের সুজালপুর মৌজার জে,এল,নম্বর-৬৮, খতিয়ান নম্বর- এস,এ-৮৬, দাগ নম্বর-৩৮৬-এর ৫৩ শতক ডাঙা জমি আমরা ১৯৮০ সাল থেকে ভোগদখল করে আসছি। ওই জমি মাঠ জরিপেও বিএস, খতিয়ান রেকর্ড আমাদের নামে হয়েছে।
কিন্তু একই উপজেলার চাকাই গ্রামের আবদুুল হামিদের ছেলে দুলাল হোসেন ও একই গ্রামের আবদুল মজিদের ছেলে হাকিম, বীরগঞ্জ সাবরেজিস্ট্রি অফিসের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তার সাথে আঁতাত করে ভূয়া দলিল সৃষ্টি করে পেশীশক্তির বলে আমাদের জমি জবর দখল করতে চেষ্টা করছে।
সংবাদ সম্মেলনে আশিকুর রহমান অভিযোগ করেন, গত ৬ ডিসেম্বর’ দুলাল হোসেন ও হাকিম অপরিচিত কিছু লাঠিয়াল লোকজন নিয়ে আমাদের ভোগদখলীয় এই জমি দখল নেয়ার চেষ্টা করে। তাদের দাবি ওই জমি তারা মীর সলিমুল্ল্যাহর কাছ থেকে রেজিস্ট্রি মুলে ক্রয় করেছে।
তিনি আরো জানান, পরবর্তীতে আমরা রেজিস্ট্রি অফিসে অনুসন্ধান করে জানতে পারি দুলাল হোসেন ও হাকিম গং ওই জমি বীরগঞ্জ উপজেলার সুজালপুর গ্রামের মৃত মীর আবদুল মান্নানের ছেলে মীর সলিমুল্ল্যাহর কাছ থেকে ক্রয় করেছে।
সংবাদ সম্মেলনে এই ভূয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ও ভূয়া জন্মসনদ দিয়ে জমি রেজিস্ট্রির বিষয়টির তদন্ত ও জমি জবর দখলের বিষয়ে দিনাজপুর জেলা প্রশাসান ও পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ