জেরুজালেম নিয়ে ট্রাম্পের বক্তব্যে বিশ্বনেতাদের প্রতিক্রিয়া

আপডেট: ডিসেম্বর ৭, ২০১৭, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পবিত্র ভূমি জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার তিনি মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তরের ঘোষণা দেবেন।
গত মঙ্গলবার ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস এবং আরববিশ্বের অন্য নেতাদের নিজের চিন্তা সম্পর্কে জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট।
অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে মধ্যপ্রাচ্যে বিপর্যয়ের ব্যাপারে সেখানকার বেশ কয়েকজন নেতাকে সতর্কও করে দিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি আরও জানান, এ পদক্ষেপের ফলে আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা রক্ষা হবে এবং ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে দীর্ঘ মেয়াদে শান্তি চুক্তির সম্ভাবনা থাকবে।
ট্রাম্পের এ ধরনের বক্তব্যে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা। প্রেসিডেন্ট আব্বাসের মুখপাত্র নাবিল আবু রুদেইনা এক বিবৃতিতে জানান, এ সিদ্ধান্ত শান্তি প্রক্রিয়ার জন্য একেবারে বিপজ্জনক হবে। এছাড়া শান্তি, নিরাপত্তা, আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা এবং বিশ্বের জন্যও তা হুমকির কারণ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
ট্রাম্পের বক্তব্যের জেরে এ ধরনের প্রতিক্রিয়া জানান আব্বাস। এরপর জর্দানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ জানান, এ ধরনের সিদ্ধান্তে এ অঞ্চলের স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাব পড়বে।
ট্রাম্পকে সতর্ক করে দিয়ে তিনি আরও জানান, জেরুজালেম এ অঞ্চলের শান্তি এবং স্থিতিশীলতা বজায় রাখার চাবিকাঠি; এমনকি বিশ্বের জন্যও। এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়া হলে তা মোকাবিলা করতে একযোগে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আব্বাসের প্রতি আহ্বানও জানান তিনি।
মিসরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি এ সিদ্ধান্তের ব্যাপারে ট্রাম্পকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এতে করে মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি আলোচনার সম্ভাবনা ভেস্তে যেতে পারে। আন্তর্জাতিক মহল এবং জাতিসংঘের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে এ ব্যাপারে মিসর পদক্ষেপ নেবে বলেও জানান তিনি।
ট্রাম্পের সঙ্গে ফোনালাপে সৌদি বাদশাহ সালমান জানান, জেরুজালেমের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনো রকমের ঘোষণা শান্তি আলোচনার পথ সংকীর্ণ করবে এবং উত্তেজনা আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।
সৌদি আরবের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত বার্তা সংস্থা এসপিএ বাদশাহ সালমানকে উদ্ধৃত করে বলছে, ফিলিস্তিনের মানুষদের এবং তাদের ঐতিহাসিক অধিকার সমর্থন করে সৌদি।
জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী করার ব্যাপারে কথা উঠতেই মঙ্গলবার সকালে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্নের হুমকি দিয়েছে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান।
জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গ্যাব্রিয়াল জানান, এতে করে দ্বন্দ্ব তো কমবেই না, উল্টো আরও বাড়বে। জেরুজালেমের বর্তমান আইনি ও রাজনৈতিক অবস্থা পরিবর্তনের ব্যাপারে কোনো ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ না করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে দিয়েছেন আরব লীগের প্রধান আহমেদ আবুল ঘেইত।
সূত্র : আল জাজিরা, জাগোনিউজ