জেলা প্রশাসককে বিদায় সংবর্ধনা

আপডেট: জুন ১৭, ২০১৯, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি


জেলা প্রশাসককে বিদায়ীসংবর্ধনা প্রদান করেন আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদের প্রতিনিধি দল সোনার দেশ

মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান রাজশাহী জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদেরকে বিদায় সংবর্ধনা জানিয়েছে রাজশাহী প্রেসক্লাব ও জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদ। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজশাহী প্রেসক্লাব ও জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদের একটি প্রতিনিধি দল রাজশাহী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গিয়ে এই সংবর্ধনা জানান। রাজশাহী প্রেসক্লাব ও জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদ সাধারণ সম্পাদক আসলাম-উদ-দৌলার নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য গোলাম সারওয়ার, সেক্টর কমান্ডার ফোরাম মহানগর শাখার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, জাতীয পার্টি মহানগর শাখার সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন মিন্টু, রাজশাহী প্রেসক্লাবের সহযোগী সদস্য শিক্ষা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ইব্রাহিম হোসেন, রাজশাহী প্রেসক্লাবের যুগ্ম-সম্পাদক নূরে ইসলাম মিলন, জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদ সদস্য কাজী রকিবউদ্দিন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মনোয়ারুল ইসলাম বকুল, জেলা তাতীঁ লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আসাদুল হক দুখু, সাংবাদিক জামালউদ্দিন, শাহিনুর রহমান সোনা, নূরে আসলাম লিটন প্রমুখ।
বিদায় সংবর্ধনা উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে রাজশাহী জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদেরের দায়িত্বপালন বরেন্দ্র অঞ্চলের মানুষকে গর্বিত করেছে। সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করার আকাঙ্খা এই অঞ্চলের বিকাশে ভূমিকা রেখেছে ও সর্বসাধারণের প্রশংসা কুড়িয়েছে। জেলা প্রশাসক হিসেবে কৃষকের দৌড়গোড়ায় গিয়ে ধান কেনার যে উদ্যোগ তিনি নিয়েছিলেন তা অন্যান্য জেলা শহরের জন্য অনুকরণীয়। তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর ছিলেন। যে কারণে ঐতিহ্যবাহী সাংবাদিক সংগঠন রাজশাহী প্রেসক্লাব ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নকারী সামাজিক সংগঠন জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদ তাকে সবসময় স্মরণ করবে।
এ সময় রাজশাহী প্রেসক্লাব ও জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদ সভাপতি সাইদুর রহমান বিশেষ কাজে কুমিল্লায় অবস্থান করায় মোবাইলফোনে জেলা প্রশাসককে বিদায় শুভেচ্ছা জানান।