জেলা বিএনপিকে ঈশ্বরদী উপজেলা ও পৌর বিএনপির চ্যালেঞ্জ! এবার পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে দণ্ডপ্রাপ্ত ৭ জন

আপডেট: নভেম্বর ২২, ২০১৯, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

সেলিম সরদার, ঈশ্বরদী


কেন্দ্রীয় বিএনপির মাধ্যমে নবগঠিত পাবনা জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে ঈশ্বরদী উপজেলা ও পৌর বিএনপি’র (একাংশ)। গত ১ নভেম্বর পাবনা জেলা বিএনপির গঠন করা ঈশ্বরদী উপজেলা বিএনপির নতুন আহ্বায়ক কমিটি না মেনে পাল্টা আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয় গত ৭ নভেম্বর। একই ধারাবাহিকতায় গত বুধবার বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জন্মদিন উদযাপন শেষে উপজেলা বিএনপির পাল্টা পূর্ণাঙ্গ আহবায়ক কমিটি গঠন করেছে বিএনপির একাংশ। এই কমিটিতে স্থান পেয়েছেন শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণ মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েকজন নেতা। গত বুধবার একই অনুষ্ঠানে ঈশ্বরদী পৌর বিএনপিরও নতুন পূর্ণাঙ্গ আহবায়ক কমিটি গঠন করেছে দলটির একাংশের নেতারা। সদ্য ঘোষিত ঈশ্বরদী পৌর বিএনপির এই কমিটিতে রয়েছেন ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত শীর্ষ নেতা সাবেক মেয়র ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য মকলেছুর রহমান বাবলু, তার ছোট ভাই মাহবুবুর রহমান পলাশ, সাবেক প্যানেল মেয়র শামসুল আলম, দশ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত পৌরসভার কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন জনি ও বিএনপি নেতা রবিউল ইসলাম রবি।
এদিকে সদ্য ঘোষিত উপজেলা বিএনপির নতুন কমিটিতে রয়েছেন ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেতা জাকারিয়া পিন্টু ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত নেফাউর রহমান রাজু। এসব নেতাদের মধ্যে জাকারিয়া পিন্টু ছাড়া অন্য সবাই রাজশাহী জেলা কারাগারে অন্তরীণ রয়েছেন। রায় ঘোষণার পর থেকেই জাকারিয়া পিন্টু পলাতক আছেন। পাল্টা কমিটি গঠন প্রসঙ্গে পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এসএম ফজলুর রহমান বলেন, পাবনা জেলা বিএনপির আহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবিবের দ্বারা প্রভাবিত উপজেলা কমিটিকে আমরা মানিনা, ওই কমিটি এবং হাবিবুর রহমান হাবিবকে চ্যালেঞ্জ করেই এই পাল্টা কমিটি গঠন করা হয়েছে। এবিষয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও পাবনা জেলা বিএনপির আহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, যারা পাল্টা কমিটি গঠন করেছেন তারা ভুল করেছেন, কেননা উপজেলা বিএনপি কিংবা পৌর বিএনপির কমিটির অনুমোদন জেলা বিএনপি দেয়, অথচ জেলা বিএনপিকে চ্যালেঞ্জ করে এবং জেলার কোন নেতার উপস্থিতি ছাড়াই তারা কমিটি ঘোষণা করে নিজেদের পায়ে নিজেরাই কুড়াল মেরেছেন। এই কমিটির কোনো বৈধতা নেই এবং এই কমিটির অনুমোদন দেয়া হবে না বলে জানান তিনি।
এদিকে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেতা মকলেছুর রহমান বাবলুর স্ত্রী সেলিনা রহমান শিউলি জানান, কারাগারে অন্তরীণ তার স্বামী মকলেছুর রহমান বাবলুর অনুমতি ছাড়াই মকলেছুর রহমান বাবলুকে পৌর বিএনপির আহবায়ক করা হয়েছে, তিনি কারাগার থেকে তার মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে হাবিবুর রহমান হাবিবের নাম রয়েছে, এ প্রসঙ্গে হাবিব বলেন, এই কমিটিই অবৈধ, আমি এ সম্পর্কে কিছুই জানিনা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ