জ্যৈষ্ঠ মাসে ঝুম বৃষ্টি

আপডেট: জুন ৩, ২০১৯, ১:০৭ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রোববার সকালে ভারি বৃষ্টিপাত হলেও ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভালো থাকায় পানি দ্রুত নিষ্কাশন হয়-সোনার দেশ

রাজশাহীতে এবার পুরো গ্রীষ্মকালে প্রচণ্ড তাপদাহ প্রবাহিত হয়েছে। তাপদাহ আর ভ্যাপসে গরমে প্রাণ অতিষ্ঠ হয়ে উঠে। একটু বৃষ্টির জন্য মানুষের মধ্যে দেখা দেয় ব্যাপক ব্যাকুলতা। সেই বৃষ্টিই গতকাল দেখা দিলো ঝুম বৃষ্টিরূপে। কোনো ঝড় নেই, কোনো বজ্রপাত নেই, কোনো মেঘের আনাগোনাও ছিল না। হঠাৎ করেই যেন অঝোর ধারায় ঝরতে শুরু করে বৃষ্টি। বৃষ্টির এই রূপ দেখে নগরবাসীর মধ্যে দেখা যায় মাস ভ্রম। অনেকেই জ্যৈষ্ঠ মাসকে আষাঢ় মাস মনে করেন। অনেকে একে নাম দেন বর্ষার ঝুম বৃষ্টি।
আবহাওয়া অফিস জানায়, গতকাল রোববার সকাল ৭টা ৩৫ মিনিটে শুরু হয় বৃষ্টি। শেষ হয় ১০: ৫৫ মিনিটে। শুরু হয় বৃষ্টি শুরু হয় ব্যাপকজুড়ে। যাকে ঝুম বৃষ্টি বলে। তবে শেষের দিকে কম বৃষ্টিপাত হয়। সর্বমোট ২৭ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। সাথে সাথে তাপমাত্রাও কমে আসে অনেক নিচে। বৃষ্টি হওয়ার কারণে আগের দিনের চেয়ে তাপমাত্রা প্রায় ১০ ডিগ্রির মতো কমে আসে। তাপমাত্রার কমে গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা দাঁড়ায় ২৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অথচ এর আগের দিন শনিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক শহিদুল ইসলাম জানান, বৃষ্টি হওয়ার কারণে তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি কমে যায়। ফলে আবহাওয়া মোটামুটি নাতিশীতোষ্ণ অবস্থায় চলে আসে। প্রাণ-প্রকৃতিও হয়ে উঠে সজীব। আগামি কয়েকদিন আবহাওয়া এই রকম বিরাজ করবে। কখনো বৃষ্টি হবে, কখনো রোদ উঠবে।
এদিকে জ্যৈষ্ঠ মাসে এত বৃষ্টিপাত দেখে মাস ভ্রম দেখা দেয় অনেকের মধ্যে। এদেরই একজন নগরীর সাগরপাড়া মহল্লার সাহিইল সুবায়ের। তিনি বলেন, এত ঝুম বৃষ্টিপাত হয়েছে যে, আমি প্রথমে বুঝতেই পারিনি, এটা জ্যৈষ্ঠ মাস। বৃষ্টি পড়া দেখে আমি মনে করেছি এটা আষাঢ় মাস। এই নিয়ে তো আমার মেয়েকে আমি রীতিমত ধমকই দিয়ে দিয়েছিলাম। পরে পত্রিকায় গিয়ে দেখি জ্যৈষ্ঠ মাসের ১৯ তারিখ।
নগরীর উপশহর এলাকার আফরোজা আক্তার পলী জানান, এই গত দুই মাস গরমে অতিষ্ঠ হয়ে গেছি। প্রাণ তিষ্ঠানো যায়নি। আজকের ( রোববার) বৃষ্টিপাত দেখে খুব শান্তি পেয়েছি। কোনো ঝড় নাই, বজ্রপাত নাই, হঠাৎ করেই দেখি বৃষ্টিপাত শুরু হয়ে গেল। আবহাওয়া বেশ আরামদায়ক।
রাজশাহী কলেজের ছাত্র আসিফুর রহমান বলেন, গত কয়েকদিন আগে রাজশাহীতে ব্যাপক ঝড় হলো। গাছের ডালপালাও ভেঙে গেছে। অথচ তেমন বৃষ্টিপাত হয়নি। কিন্তু আজকে বেশ ভালো বৃষ্টিপাত হয়েছে। ঝড়ও হয়নি।
এদিকে বৃষ্টিপাতে ফসলের কোনো ক্ষতি হবে হবে না বলে মনে করেন রাজশাহী কৃষি সম্পসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক শামসুল হক। তিনি বলেন, বৃষ্টিপাতে ফসলের কোনো ক্ষতি তো হবেই না বরং উপকার হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ