জ্যোতির ছবি কলকাতায় দেখলেন কবরী

আপডেট: অক্টোবর ২, ২০১৯, ১:২১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


কিংবদন্তি অভিনেত্রী-নির্মাতা কবরীর হাত ধরে বড় পর্দায় পা রাখেন জ্যোতিকা জ্যোতি। ২০০৫ সালে ‘আয়না’ নামের ওই ছবিটি মুক্তি পায়।
এবার অনুজ জ্যোতির নতুন ছবি ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’ কলকাতায় দেখলেন কবরী।
গত ২৭ সেপ্টেম্বর পশ্চিমবঙ্গে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেয়েছে। আর জ্যোতি ও কবরী একসঙ্গে পরশু (৩০ সেপ্টেম্বর) কলকাতার সাউথ সিটি আইনক্সে ছবিটি দেখেছেন।
ছবিটি দেখে ভীষণ প্রশংসাও করেছেন কবরী। তার সঙ্গে ছবি দেখা প্রসঙ্গে জ্যোতিকা জ্যোতি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘গুণী অভিনেত্রী কবরী আপা কিছু কাজে কলকাতায় এসেছেন। আর গতকালের পুরো সময়টা আমার জন্য বরাদ্দ রেখেছিলেন। একসঙ্গে সাউথ সিটি আইনক্সে বসে ছবিটি দেখলাম। তিনি ভীষণ খুশি হয়েছেন। তার প্রশংসা আসলে আমার জন্য বিশেষ প্রাপ্তি। এটা আমার পরম সৌভাগ্য যে তার মতো অভিনেত্রী-নির্মাতার হাত ধরে বড় পর্দায় আমার যাত্রা হয়েছিল। আজ তিনি হলে বসে আমার অভিনীত ছবি দেখলেন!’
কবরী ছাড়াও ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’ দেখেছেন দেশের আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।
শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’র ছায়া অবলম্বনে নির্মিত ছবিটি এরইমধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে পশ্চিমবঙ্গে। প্রথম ছবি দিয়েই ওপার বাংলার দর্শকদের নজর কেড়েছেন বাংলাদেশের এই অভিনেত্রী।
ভারতের নির্মাতা প্রদীপ্ত ভট্টাচার্যের পরিচালনায় ছবিতে শ্রীকান্ত চরিত্রে দেখা যাবে ঋত্বিক চক্রবর্তীকে আর রাজলক্ষ্মীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন জ্যোতি। এতে আরও আছেন রাহুল, আর জে সায়নসহ অনেকে।
‘বাকিটা ব্যক্তিগত’-খ্যাত কলকাতার পরিচালক প্রদীপ্ত ভট্টাচার্য। ছবিতে নতুন মোড়কে এসেছে ‘রাজলক্ষ্মী-শ্রীকান্ত’। অনুপ্রবেশ ও উদ্বাস্তু সমস্যা, নারীপাচার, চোরাকারবার, ধর্ম ও জাতির ভিত্তিতে সমাজের বিভেদ—সবই থাকছে এতে। এখানে রাজলক্ষ্মী বাংলাদেশ থেকে কলকাতায় চলে যাওয়া ছিন্নমূল পরিবারের একটি মেয়ে। পরে নারীপাচার চক্রের ফাঁদে পড়ে তাকে নামতে হয় দেহ ব্যবসায়ও। বৈচিত্র্যপূর্ণ এই চরিত্রটিতেই দেখা যাচ্ছে ঢাকাই অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতিকে।