জয়পুরহাটে কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৮, ১২:৩৬ পূর্বাহ্ণ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি


পরপর গত তিন বছর ধরেই লোকসানের পর এ মৌসুমে জয়পুরহাটে আলুর বাম্পার ফলন হয়েছে। আলুর দাম আশানুরপ না হলেও মোটামুটি দাম পাওয়ায় খুশি জেলার আলু চাষিরা। এ উপলক্ষে কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জয়পুরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক সুধেন্দ্রনাথ রায় জানান, চলতি মৌসুমে ৪২ হাজার হেক্টর জমিতে লাল পাকরী, সাদা পাকরী, জাম, রোমানা, ডায়ামান্ট, কার্ডিনাল, গ্রানোলা, এস্টারিক্সসহ বেশ কয়েকটি দেশি-বিদেশি জাতের আলু চাষ হয়েছে। এরমধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ জমি থেকে আলু তোলার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। চলতি মৌসুমে ইতোমধ্যেই ৮ লাখ ৬৪ হ্জাার মেট্রিক টন আলু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়েছে বলেও দাবি জেলার কৃষি বিভাগের। এছাড়া বর্তমানে জাতভেদে আলুর বাজার দর চলছে মণপ্রতি ২২০ টাকা থেকে ৩৫০ টাকা পর্যন্ত বলেও জানিয়েছেন জয়পুরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর উপপরিচালক সুধেন্দ্রনাথ রায়।
অনুকূল আবহাওয়া, সার, বীজসহ কৃষি উপকরণের সহজলভ্যতা, রোগ বালাইয়ের আক্রমণ না হওয়া, সর্বোপরি উৎকৃষ্টমানের বীজ সরবরাহের কারণে বাম্পার ফলন সম্ভব হয়েছে বলে জানান আলু বীজ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ব্রাক সীডের কর্মকর্তাগণ। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার গোরনা গ্রামের বিস্তীর্ণ আলু খেতের পাশে অনুষ্ঠিত কৃষক মাঠ দিবসে বীজ ডিলার গোলাম রব্বানীর সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন ব্রাক সিড প্রধান কার্যালয়ের উৎপাদন ব্যবস্থাপক কৃষিবিদ এমএ মনছুর, ব্রাক সিড কর্মকর্তা হাফিজুল ইসলাম, হারুন অর রশিদ, খলিলুর রহমান, বগুড়া জোনের বিজ ডিলার সমিতির সভাপতি আবদুল জোব্বার, স্থানীয় কৃষক আজাহার আলী প্রমুখ। আগামী মৌসুমে সঠিক আলুবীজ দেখে সংগ্রহ করে তা সঠিক নিয়মে রোপণের পরামর্শ দেন বক্তারা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ