জয়পুরহাটে মেডিকেল টেকনোলজী অ্যান্ড ম্যাটসের জমি দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন

আপডেট: জুলাই ১০, ২০১৯, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ণ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি


জয়পুরহাট ইন্সটিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজী অ্যান্ড ম্যাটসের জমি দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করে ও বাংলাদেশ রেলওয়ে (পশ্চিমাঞ্চল) জেনারেল ম্যানেজার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে প্রথমে প্রতিষ্ঠানটির সামনে ও পরে শহরের জিরো পয়েন্ট কেন্দ্রীয় মসজিদের সামনে পৃথক পৃথকভাবে ঘন্টাব্যাপি শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।
এসময় শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা কথিত অবৈধভাবে জমি অধিগ্রহণ বিষয়ে জানান, ২০১৮ সালের জুন পর্যন্ত রেলওয়ের লাইসেন্স ফি পরিশোধ থাকা সত্বেও ২০১৭ সালের ১৯ অক্টোবর তারিখে রেলওয়ে আহবানকৃত টেন্ডার-এ প্রতিষ্ঠানের সীমানা প্রাচীরের ভেতরে রেলওয়ের মাঠ পর্যায়ের কানুনগো ও ট্যাক্স ভ্যাট আদায়কারীদের সঙ্গে যোগসাজসে কিছু অংশ অবৈধভাবে ওই টেন্ডারে অন্তর্ভুক্ত করানো হয়। রেলওয়ের নিয়ম অনুয়ায়ী টেন্ডারের বিষয়টি প্রচারের জন্য মাইকিং করা বা নোটিশ প্রদান করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। লাইসেন্স ফি প্রদানের মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্বেই টেন্ডার আহবানকে চ্যালেঞ্জ করে প্রতিষ্ঠানটি রেলওয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। মামলাটি বিচারাধীন থাকা অবস্থায় রেলগেইটের ছানাঘরের স্বত্বাধীকারী মোজাম্মেল হক ও তার ছেলে এহসান অবকাঠামো নির্মাণের চেষ্টা চালায়। রাতের আধারে তারা সীসানা প্রাচীরের কিছু অংশ ভেঙে ফেলে। এসবের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা এই কর্মসূচি পালন করে। প্রতিষ্ঠানটি তার কলেবর বৃদ্ধির জন্য কৃষি ও ফাঁকা জায়গায় আরো ভবন নির্মাণের পরিকল্পনায় রেলওয়ের ভূমি বিভাগের কাছে আবেদনও করে। কিন্তু মোজাম্মেল হক গং যোগসাজস করে রেলওয়ের মাঠ পর্যায়ের কর্মচারীদের ভুল বুঝিয়ে জমিটি লিজ নেয়। উল্লেখ্য, প্রতিষ্ঠানটি স্বাস্থ্য শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্যাপক অবদান রেখে চলেছে। ইতোমধ্যেই দশম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা অধ্যয়ন করছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি ফলাফলে পর পর তিন বার জাতীয়ভাবে ১ম সারিতে অবস্থান করে। মানববন্ধন শেষে জয়পুরহাট স্টেশন মাস্টার হাবিবুর রহমানের কাছে বাংলাদেশ রেলওয়ে, পশ্চিমাঞ্চল জেনারেল ম্যানেজার বরাবর একটি স্মারকলিপি দেন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ