তরুণদের এগিয়ে আসার তাগিদ দিলেন ম্যাকেঞ্জিও

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৮, ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিগত কয়েক বছরে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের উদ্বোধনী উইকেটে তামিমের সাথে জুটি গড়েছেন বেশ ক’জন খেলোয়াড়। কিন্তু থিতু হতে পারেননি কেউই। ব্যর্থ হয়েছেন ইমরুল কায়েস, এনামুল হক বিজয়রা। সম্ভাবনা জাগিয়েও বেশি দূর যেতে পারেননি সৌম্য সরকার। এখন সেই খালি জায়গা পূরণের চেষ্টা চলছে তরুণ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন দাশকে দিয়ে।
লিটন কতটুকু কি পারবেন তা সময়ই বলে দেবে। আর লিটনের মতো তরুণ খেলোয়াড়দের নিজেদের সামর্থ্যের প্রমাণ দিতে যে সময়টা প্রয়োজন সেই সময় দিতে রাজি আছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ব্যাটিং কোচ নেইল ম্যাকেঞ্জি। এশিয়া কাপের আগে সোমবারই প্রথমবারের মতো টাইগার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে কাজ করেছেন সাবেক প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান ম্যাকেঞ্জি।
প্রথম দিনেই তরুণ খেলোয়াড়দের এগিয়ে আসার তাগিদ জানিয়ে রেখেছেন তিনি। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সময় ও সহযোগিতা, উভয়ই দিতে প্রস্তুত নতুন এ ব্যাটিং কোচ। বিশেষ করে বাংলাদেশের উদ্বোধনী জুটির যে সমস্যা, তা সমাধানে লিটনকে যথেষ্ট সময় দেবেন তিনি। তবে এক্ষেত্রে ম্যাকেঞ্জির চাওয়া থাকবে লিটনের মতো তরুণ খেলোয়াড়রা যেন নিজেদের মেলে ধরে।
সোমবার দুপুরের পর শুরু হওয়া প্র্যাকটিস সেশন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের ম্যাকেঞ্জি বলেন, ‘এই মুহুর্তে আমার একজোড়া উন্মুক্ত চোখ আছে। আপনারা আমাকে নানা কথাই বলে যেতে পারেন, আমি কখনোই এটা নিয়ে তেমন কিছু ভাববো না। আমি সবাইকে গড়ে ওঠার জন্য যথেষ্ট সময় দিতে চাই। আমি তেমন কোন সমস্যা দেখতে পাচ্ছিনা এখানে। আমার মনে হয় টি-টোয়েন্টিগুলোতে (লিটন) দাশ বেশ ভাল ইনিংস খেলেছে। তামিম অনেক রান পেয়েছে। আমার মনে হয় ৫ ওভারে ৭০ রান তোলা সঠিক নিশানায় চলার ধাপ হতে পারে।’
তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমি মনে করি অন্তত একজন তরুণ খেলোয়াড় এগিয়ে এসে দেখাবে তারা কি করতে পারে। আমাদের গেম প্ল্যান নিয়ে কথা বলতে হবে, কমিটমেন্ট ও বিভিন্ন বিষয়ে মানসিক দিক নিয়ে আলোচনা করতে হবে। ভাল কিছু বের করে আনার ব্যাপারে আমি ইতিবাচক। আমি এশিয়া কাপের দলে বেশ কয়েকজনকে বাদ পড়তে দেখেছি, তার মানে যারা আছে তারাই সেরা খেলোয়াড়।’
এসময় ম্যাকেঞ্জি পরিস্কার জানিয়ে দেন এখনই দলের খেলোয়াড়দের ব্যাপারে বিস্তারিত বলতে রাজি নন তিনি। দলের সিনিয়র খেলোয়াড়দের তৈরি করা সিড়ি বেয়েই এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট, তা বুঝতে পেরেছেন তিনিও। তবে কয়েক মাস পরে দলের খেলোয়াড়দের আরো বেশি পরিণত করে ও সুযোগ দিয়ে তবেই তরুণদের অবদানের ব্যাপারে কথা বলতে চান ম্যাকেঞ্জি।
তিনি বলেন, ‘সিনিয়র খেলোয়াড়দের তৈরি করা প্ল্যাটফর্ম এখন দেখতে পাচ্ছেন। বাংলাদেশ খুবই ভাল একটি দল। আমাদের শক্তিমত্তা ব্যবহার করতে হবে। যেমন- ব্যাটের ভাল গতি এবং দারুণ কব্জির ব্যবহার। আমার মনে হয়না ছেলেদের এসব ভূমিকা পালনের সুযোগ দেয়া হয় গেম প্ল্যানের কারণে। তুলনায় যাওয়া বেশ কঠিন, হয়তো আমাকে ৬/৭ মাস পর আমাকে জিজ্ঞেস করুন, ততোদিনে আমি ছেলেদের বুঝতে পারব। আমার মনে হয় বিটুইন দ্য উইকেটে আমরা বেশ দ্রুত এবং আমরা খুব কার্যকরভাবে কব্জির ব্যবহার করতে পারি।’