তাইজুলের পাঁচ উইকেটের পর জহুরুলের দৃঢ়তা

আপডেট: অক্টোবর ১৪, ২০১৯, ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আগের দিন নিয়েছিলেন ৩ উইকেট। গতকাল শেষ দিনে আরো দুই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে তাইজুল ইসলাম পূর্ণ করেছেন পাঁচ উইকেট। পরে লক্ষ্য তাড়ায় দ্রত দুই ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে চাপে পড়েছিল রাজশাহী বিভাগ। তবে জহুরুল ইসলামের দৃঢ়তাপূর্ণ ব্যাটিংয়ে ঢাকার সঙ্গে ড্র করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।
ওয়ালটন ২১তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ডে প্রথম স্তরের এই ম্যাচে শেষ দিন ২৯৮ রানের লক্ষ্যে রাজশাহী ৫ উইকেটে ১০৬ রান তোলার পর ড্র মেনে নেয় দুই দল।
ফতুল্লায় দ্বিতীয় ইনিংসে আগের দিনের ৬ উইকেটে ২০৬ রান নিয়ে শেষ দিন শুরু করেছিল ঢাকা। এদিন আর ৫৪ রান তুলতেই বাকি ৪ উইকেট হারায় তারা। প্রথম ইনিংসে ৮৮ রানে অপরাজিত ছিলেন তাইবুর রহমান। এবার তিনি সেই ৮৮ রানেই আউট হয়েছেন।
সুমন খানকে ফিরিয়ে দিনের প্রথম উইকেট নিয়েছিলেন তাইজুল। নাজমুল ইসলামকে ফিরিয়ে ঢাকার ইনিংস গুটিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন বাঁহাতি স্পিনার।
প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নেওয়া তাইজুল এবার ১০৫ রানে নেন ৫ উইকেট। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ২২তম বারের মতো পাঁচ উইকেট পেলেন তিনি। ৪১ রানে ৩ উইকেট নেন ফরহাদ রেজা।
লক্ষ্য তাড়ায় ২০ রানের মধ্যে মিজানুর রহমান ও জুনায়েদ সিদ্দিককে হারিয়ে চাপে পড়ে যায় রাজশাহী। মিজানুরকে বোল্ড করেন শাহাদাত হোসেন, সুমনের বলে এলবিডব্লিউ জুনায়েদ।
জহুরুল ছিলেন অবিচল। তিনিই বাধা হয়ে দাঁড়ান ঢাকার বোলারদের সামনে। তাকে সঙ্গ দেন অভিষেক মিত্র ও মুশফিকুর রহিম। এই দুজন অবশ্য উইকেটে থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি। অভিষেক ৬২ বলে ১৯, মুশফিক ৬০ বলে করেন ২১ রান।
প্রথম ইনিংসে ১১ রান করা সাব্বির রহমান আবারো ব্যর্থ হয়েছেন। এবার ১৩ বল খেলে রানের খাতাই খুলতে পারেননি। তার বিদায়ের পর শাখির হোসেনকে নিয়ে আরো প্রায় দশ ওভার কাটিয়ে দেন জহুরুল। ১৮১ বলে ৩ চারে ৪০ রানে অপরাজিত ছিলেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান। ২২ বলে ৩ রানে অপরাজিত থাকেন শাখির। দুই ইনিংসেই ৮৮-র মায়ায় আটকে পড়া তাইবুর হয়েছেন ম্যাচ সেরা।