তারা নিজেরা কি করেছে, প্রশ্ন তামিমের

আপডেট: জুন ১৬, ২০১৯, ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মাশরাফি বিন মুর্তজার সমালোচনা আহত করেছে তামিম ইকবালকে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে মাশরাফির অবদান কতটা, সমালোচকদের সেটি মাথায় রাখতে বলেছেন দেশের সফলতম ব্যাটসম্যান। দেশের বাইরে সাবেক ক্রিকেটার যারা প্রশ্ন তুলেছেন, তাদের জন্য তামিমের পরামর্শ, নিজের ক্যারিয়ারের দিকে ফিরে দেখা।
মাশরাফির মতো এবারের বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত নিজের সেরাটা খেলতে পারেননি তামিমও। তিনি দেশের সফলতম ব্যাটসম্যান, মাশরাফি দেশের সফলতম ওয়ানডে বোলার। কিন্তু গত কয়েকদিনে এই দুজনের দিকেই সমালোচনার তীর ছুটেছে বেশি।
শনিবার টনটনে দলের অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদ সম্মেলনে তামিমকে প্রশ্ন করা হয়েছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সমালোচনা নিয়ে। বাঁহাতি ওপেনার নিজেকে নিয়ে কিছু বললেন না, তবে জানালেন মাশরাফিকে নিয়ে নানা কথা কতটা স্পর্শ করেছে তাকে।
“কথা বলে কারা? এটা দেখা গুরুত্বপূর্ণ যে, কারা কথা বলছে। আমার কথা বাদ দিলাম, মাশরাফি ভাইয়ের কথাই বলি। আমি আগেও বলেছি, যারা লিখছে বা বলছে, তারা যদি লেখা বা বলার আগে দুই মিনিটও চিন্তা করে যে কার ব্যাপারে লিখছি, তিনি কি করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য…! তাকে যদি আনফিট বলা হয় তাহলে তো গত ১০ বছর ধরেই আনফিট! এখন একটু উনিশ-বিশ হচ্ছে বলে বড় করে দেখা হচ্ছে।”
“এমন একজন ব্যক্তিকে নিয়ে কথা হচ্ছে, যার হাত ধরে আজ আমরা এখানে। দল হিসেবে বলুন বা আমি নিজে, তার হাত ধরেই এগিয়েছি। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। উনি যা করেছেন দলের জন্য, বাংলাদেশ ক্রিকেটকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য, উনার ব্যাপারে এভাবে মন্তব্য করা বা আলোচনা করা খুবই অন্যায়। আরও অনেক বেশি শ্রদ্ধা তার প্রাপ্য।”
তামিম থামেননি এখানেই। নিজেই বলেছেন বাইরের ক্রিকেটারদের কথা। সাবেক ভারতীয় পেসার অজিত আগারকার কয়েকদিন আগে বলেছেন, দলে জায়গা পাওয়া উচিত নয় মাশরাফির। সেদিকে ইঙ্গিত করে তামিম ছুঁড়েছেন পাল্টা প্রশ্ন।
“অন্যরা কী বলছে, সেটাকে আমি পাত্তাও দেই না। কিন্তু কয়েকজন বিদেশি ক্রিকেটার যারা বলেছেন, তাদের কাছে আমার প্রশ্ন, নিজেরা কি করেছেন? নিজেদের খেলোয়াড়ি জীবনে কি করেছেন যে আরেকজনকে নিয়ে এভাবে বলছেন?”
তবে আগারকারদের সমালোচনাকে আবার পাত্তাও দিতে চাচ্ছেন না তামিম। দেশের ক্রিকেট অনুসারীদের তাই অনুরোধ করলেন, ক্রিকেটের বাস্তবতা ভাবনায় রাখতে।
“আমার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ না যে দেশের বাইরে কে কী বলছেন। সবাই নিজের মতামত দিতে পারে। কিন্তু দেশের মানুষের মনে রাখা উচিত যে, আমি যখন মাশরাফি মুর্তজার ব্যাপারে কথা বলছি, দেশের ক্রিকেটকে উনি কি দিয়েছেন। খেলোয়াড়দের জীবন চক্রে ভালো সময়, খারাপ সময় আসে। শুধু ভালো খেললেই যে সঙ্গে থাকবেন, তা তো উচিত নয়। খারাপ খেললেও পাশে থাকা উচিত।” “একটা দলে সব ক্রিকেটার সবসময় ভালো খেলে না। যে দল চ্যাম্পিয়ন হবে, তাদেরও সবাই ভালো করবে না। এটাই আশা করি যে এসব নিয়ে লোকে বেশি কথা বলবে না। উনি দেশের ক্রিকেটে কি করেছেন, সেটা সবাই মাথায় রাখবেন।”-বিডিনিউজ