নওগাঁয় দুই সাংবাদিককে পেটাল সন্ত্রাসীরা

আপডেট: জানুয়ারি ১১, ২০১৮, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি


নওগাঁর সাপাহারে দুই সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। গতকাল বুধবার দুপুরে সাপাহার উপজেলা সদরের জিরোপয়েন্ট এলাকায় গিয়াস মার্কেটে তাদের উপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলাকারীরা সাংবাদিকদের মারপিট করে ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়।
আহত ওই দুই সাংবাদিক হলেন, বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আই ও বাসসের নওগাঁ প্রতিনিধি ও নওগাঁ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি কায়েস উদ্দীন এবং এটিএনবাংলা ও এটিএন নিউজের প্রতিনিধি রায়হান আলম। সন্ত্রাসীরা এটিএননিউজ ও এটিএন বাংলার ক্যামেরাম্যান সুমন ইসলামকেও মারপিট করে। তারা সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।
সাংবাদিক রায়হান আলম বলেন, সাপাহার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাজাহান আলীর বিরুদ্ধে সাপাহার সদরের জিরোপয়েন্ট এলাকায় গিয়াস মার্কেট নামে একটি মার্কেট দখলের ঘটনায় গত মঙ্গলবার মামলা হয়। এ অভিযোগের সূত্রে ধরে প্রকৃত ঘটনা অনুসন্ধান করতে গতকাল দুপুরে আমরা ঘটনাস্থলে তথ্য সংগ্রহ করছিলাম। এ সময় দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ৭-৮জন সন্ত্রাসী আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। লাঠি ও চেলা কাঠ দিয়ে তারা আমাদের মারধর করে। হামলাকারীরা মারপিট করে ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আমাদের উদ্ধার করে। সাংবাদিক কায়েস উদ্দীন বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা শাহাজাহান আলীর নির্দেশে আমাদের হামলা চালানো হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা আইনের আশ্রয় নেব। আশা করি, পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসবে। হামলার বিষয়ে আওয়ামী লীগ নেতা শাহাজাহান আলী বলেন, এ হামলার ঘটনায় আমার কোনো হাত নেই। সাংবাদিকের সঙ্গে আমার কোনো বিরোধ নেই। বিপণিবিতান দখলের বিষয়ে বিরোধীপক্ষ আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। আমি আদালতেই এর জবাব দেব। সাপাহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম শাহ্ বলেন, এ ঘটনায় মামলার দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। ঘটনা তদন্ত করে প্রকৃত হামালাকারীদের শনাক্ত করে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।