নগরীতে একই পরিবারের তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার অভিযোগ

আপডেট: অক্টোবর ১৮, ২০১৯, ১২:৫২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীতে একই পরিবারের তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও পত্রিকায় অসত্য তথ্য দিয়ে হয়রানির অভিযোগ এনে তার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগিরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী মো. শাহীন লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি ও আমার দুই ছোট ভাই তুহিন এবং নাঈমের বিরুদ্ধে সম্প্রতি একটি মিথ্যা মামলা দেয়া হয়। সে মামলার বরাত দিয়ে রাজশাহীর স্থানীয় কয়েকটি দৈনিক পত্রিকা ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে গত বুধবার (১৬ অক্টোবর) অসত্য তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদের শিরোনাম দেয়া হয়েছে ‘রাজশাহীতে প্রকাশ্যে ঘুরছে সজিব হত্যা চেষ্টা মামলার আসামিরা’। অথচ সজিব নামের আমরা কাউকে চিনি না। তারপরও আমাদের নামে মিথ্যা মামলা ও তাদের নামে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, আমরা নগরীর লক্ষ্মীপুর ভাটাপারার স্থায়ী বাসিন্দা। আমার বাবা মরহুম আবুল হোসেন ছিলেন একজন সাহেববাজারের স্বনামধন্য মুরগি ব্যবসায়ী। আমি তার মেজ পুত্র মো. শাহীন দীর্ঘ ২২ বছর ধরে পৈতৃক সূত্রে মেসার্স আবুল ট্রেডার্স সুনামের সাথে পরিচালনা করে আসছি। ব্যবসায়ের সাথে আমার ভাই তুহিন ও নাঈম ওতপ্রোতভাবে জড়িত।
তিনি আরো বলেন, গত দেড় মাস আগে রাজশাহীর একটি অনলাইন পত্রিকায় আমাদের পরিবারের নামে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিলো। সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছিলো গত ২৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার। সেই সংবাদের শিরোনাম ছিলো ‘রাজশাহীতে চাঁদা না দেয়ায় যুবককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা’। সংবাদে আমাদের তিন ভাইয়ের নামে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয়েছিলো। সংবাদটিতে যেসকল তথ্য দেয়া হয়েছিলো আমাদের বিরুদ্ধে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। পরবর্তীতে সেই সংবাদের প্রতিবাদ দিয়েও কোনো লাভ হয়নি।
শাহীন বলেন, এই সংবাদটি প্রকাশের পর থেকেই নানাভাবে আমাদের এলাকায় যেকোনো ঘটনা ঘটলেই একটি কুচক্র মহল আমদের ব্যবসায়ের ক্ষতি করার ও সুনাম নষ্ট করার উদ্দেশ্য নিয়েই আমদের তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে আসছে।
সংবাদ সম্মেলনে শাহীনের ছোট ভাই তুহিন বলেন, আমরা ফিরোজ আহমেদ সজিব নামের কাউকে চিনি না এবং তার বাসা কোথায় তা-ও জানতাম না। কিন্তু সংবাদে দেখি যে আমাদের নামে চাঁদাবাজি ও হত্যা চেষ্টার মামলা দেয়া হয়। সংবাদে যে দিন ঘটনাটি ঘটার কথা উল্লেখ করা হয়েছে সেদিন আমি ও নাইম ব্যবসায়ের কাজে ব্যস্ত ছিলাম এবং শাহীন ভাই বাসায় ঘুমাচ্ছিলো।
তুহিন বলেন, কি উদ্দেশ্যে ও কি স্বার্থে আমাদের নামে মিথ্যা মামলাটি দেয়া হয় বিষয়টি আমাদের চিন্তায় ফেলেছে। পরে সূত্র ধরে জানতে পারি আমাদের বাসার পাশে বনি চানাচুর ফ্যাক্টরির মালিক এর সাথে একটি পোল বসাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়েছিল ও পরিবারিকভাবে সেটা মীমাংসাও হয়েছিল। কিন্তু সেই শত্রুতার জের ধরে নানান কুচক্র মহলকে আমাদের পিছনে টাকার প্রলোভন দেখিয়ে লেলিয়ে দেয় তারা।
তিনি বলেন, রাজপাড়া থানার মাধ্যমে জানতে পারি যে ছেলেকে হত্যা চেষ্টার মামলা আমাদের নামে দেয়া হয়েছে সেই ফিরোজ আহমেদ সজিব নামের ছেলেটির নামে মাদকাসক্ত, মাদককারবারী, চাঁদাবাজ, ছিনতাইকারী বিভিন্ন অপকর্ম ও অসামাজিক কর্মে লিপ্ত এরকম বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। আর সেই সজীবকে টাকার প্রলোভন দেখিয়ে বনি চানাচুর ফ্যাক্টরির মালিক নূর আলমের ছোট ভাই মিজানুর বিভিন্ন কায়দায় আমাদের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করছে এবং আমাদের তিন ভাইয়ের নামে মিথ্যা হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে আমাদের ব্যবসায়ের ক্ষতি ও সুনাম নষ্ট করার চেষ্টা করছে।
তিনি আরো বলেন, আমাদের নামে যেসকল মামলা দেয়া হয়েছে এবং সংবাদে যেসকল তথ্য দিয়ে প্রকাশ করা হয়েছে সেগুলো পুনরায় যাচাই করে কারা এর সাথে জড়িত এবং কোন অসৎ উদ্দেশ্যে আমাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে তা যাচাই করার অনুরোধ জানান তিনি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ