নগরীতে বঙ্গবন্ধু কাপ ১ম আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন || উদ্বোধনী ম্যাচে বঙ্গবন্ধু কলেজ ও কমেলা হক কলেজের পয়েন্ট ভাগাভাগি

আপডেট: নভেম্বর ৬, ২০১৯, ১:০৫ পূর্বাহ্ণ

ক্রীড়া প্রতিবেদক


বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন-সোনার দেশ

নগরীর ১২টি বেসরকারি কলেজ নিয়ে প্রথমবারের মতো শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু কাপ প্রথম আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্টের আসর।
গতকাল মঙ্গলবার নগরীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে জাতীয় পতাকা, বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে এই টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন জাতীয় চারনেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সুযোগ্য সন্তান ও রাজশাহী সিটি সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র লিটন বলেন, ফুটবল হচ্ছে জনপ্রিয় খেলা। রাজশাহীর অধিকাংশ ফুটবলার একসময় ঢাকার মাঠ কাঁপিয়ে রাখতো। কিন্তু এখন সেটি আর নেই, তাই পূর্বের ন্যায় ঢাকার মাঠ কাঁপানোর জন্য রাজশাহীর ফুটবলকে আবার চাঙ্গা করতে হবে। হারিয়ে যাওয়া ফুটবলকে সকলের সামনে তুলে ধরতে হবে। যা দেখে রাজশাহীবাসী গর্ব করে বলতে পারে রাজশাহীর ফুটবল হারিয়ে যায়নি এখনো বেঁচে আছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ভারতে খেলতে গিয়ে যা দেখিয়েছে তা আমাদের গর্বের বিষয় । আমি আশা করি ফুটবলেও একদিন আমাদের দেশের ছেলেমেয়েরা গৌরব বয়ে আনবে।
আয়োজনকারী ও ক্রীড়া সংগঠকদের উদ্দ্যেশে করে লিটন আরও বলেন, স্কুল, কলেজ ও ক্রীড়াঙ্গনে পূর্বের ন্যায় প্রশিক্ষণ ও নিয়মিত ফুটবল খেলা আয়োজন করতে হবে। এজন্য সংগঠকদের সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, রাজশাহীতে জাকজমকভাবে সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় পূর্বের ন্যায় আবারো ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হবে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক ও রাজশাহী জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি হামিদুল হক আয়োজনকারীদেরকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, লেখাপড়ার একটি অংশ ফুটবল খেলা কাজেই এই টুর্নামেন্টে তোমরা যারা খেলতে এসেছো তাদের সব সময় ভাল খেলা উপহার দিতে হবে। জোর করে জিতবো এটি মনে রাখলে চলবে না। হেরে যাওয়াটিও এক প্রকার জয়। একটি দল হারবে একটি দল জিতবে এটিই নিয়ম। কোন সময় খেলোয়াড়ি মনোভাব থেকে সরে গেলে চলবে না।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন টুর্নামেন্ট কমিটির আহ্বায়ক ও বঙ্গবন্ধু কলেজের উপাধ্যক্ষ কামরুজ্জামান। এ সময় রাজশাহী জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাবৃন্দ, রাসিকের কাউন্সিলার, অংশগ্রহণকারী কলেজগুলোর অধ্যক্ষ ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এবারের টুর্নামেন্টে ১২টি বেসরকারি কলেজ নিয়ে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম, শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ, শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলী ও শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান গ্রুপ করে চার গ্রুপে অংশ নিবে। উদ্বোধনী দিনে বঙ্গবন্ধু কলেজ ও কমেলা হক কলেজ গোল শুন্য ড্র করে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নেয়। ম্যাচসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন বঙ্গবন্ধু কলেজের রানা। এই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী কলেজগুলো হলো-বঙ্গবন্ধু কলেজ, রাজশাহী কোর্ট কলেজ, সুজাউদ্দৌলা কলেজ, মেট্টোপলিটন কলেজ, কমেলা হক কলেজ, শহীদ মামুন মাহমুদ স্কুল এন্ড কলেজ, অগ্রণী স্কুল এন্ড কলেজ, শাহমখদুম কলেজ, কাশিয়াডাঙ্গা কলেজ ,মহানগর কলেজ, ইসলামিয়া কলেজ ও বরেন্দ্র কলেজ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ