নলডাঙ্গায় দুপুরেও অনেক কেন্দ্র ভোটার শূণ্য ছিল

আপডেট: জুন ১৯, ২০১৯, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি


নলডাঙ্গায় একটি কেন্দ্রে ভোট দেয়অর আগে নারী ভোটারের আঙ্গুলের ছাপ নিচ্ছেন দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা-সোনার দেশ

নাটোরের নলডাঙ্গায় কড়া নিরাপত্তার মধ্যে শান্তিপূর্ণ ভাবে উপজেলা নির্বাচনে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। তবে ভোট কেন্দ্রগুলোতে সেভাবে ভোটারদের উপস্থিতি ছিলনা। সকালের দিকে কেন্দ্রগুলোতে কিছু নারী ও পুরুষ ভোটার দেখা গেলেও দুপুরের দিকে প্রায় ভোট কেন্দ্রগুলোই ছিল ফাঁকা। তবে বেলা বেলা ২টার পর থেকে কেন্দ্রগুলোতে কিছু নারী ভোটারদের উপস্থিতি দেখা যায় । সমাগ্রিক ভাবে মনে হয়েছে পুরুষদের চেয়ে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল বেশী। দুপুরের দিকে ঠাকুরলক্ষীকোল, পাটুল, পিপরুল , পাবনাপাড়া সহ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায় এসব কেন্দ্রে একবারেই ভোটার শূণ্য। স্থানীয় লোকজনদের সঙ্গে০ কথা বলে জানা যায় , মূলত রান্না ও খাওয়া দাওয়ার জন্য এসময়টা কেন্দ্রগুলো ফাঁকা ছিল। বেলা ১ টার দিকে ভোট চলাকালীন সময়ে বিপ্রবেলঘড়িয়া ইউনিয়নের হলিদা খলসি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে রনি নামের এক যুবক প্রভাব বিস্তার করতে চেষ্টা করে। এসময় স্থানীয়রা ধাওয়া দিলে রনি একটি ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যায়। পরে ব্যাগের ভিতর থেকে একটি হাতুড়ি, চাইনিজ কুড়াল এবং হাসুয়া উদ্ধার করা হয়। রনি একই এলাকার আইয়ুব আলীর ছেলে।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসমিনা খাতুন জানান, রনি পলাতক থাকায় পুলিশকে নিয়মিত মামলা করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
অপরদিকে, ভোট গ্রহণের ক্ষেত্রে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা পরস্পরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী আহাম্মদ আলী শাহ ও শাখাওয়াত হোসেনের অভিযোগ তাদের ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে দিচ্ছে না নৌকার প্রার্থী আসাদুজ্জামান আসাদের সমর্থকরা।
এদিকে আওয়াামী লীগ প্রার্থী আসাদুজ্জামান জানান, সকল কেন্দ্রে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হচ্ছে। কিছু কিছু কেন্দ্রে প্রশাসনের লোকজন তার সমর্থকদের হয়রানি করছে।
সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, উপজেলায় মোট ৪৫ পার্সেন্ট ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। কোথাও কোন অনিয়মের অভিযোগ তিনি পাননি। নাটোরের পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন করতে কঠোর নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ৫জন অর্মড পুলিশসহ, আনসার ভিডিপি কর্মিরা দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি র‌্যাব বিজিবি ও পুলিশের স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে টহল দিয়েছেন। এছাড়া দুটি কেন্দ্রের জন্য একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত সক্রিয় ছিল। আইনশৃৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে।
উল্লেখ্য, নলডাঙ্গা উপজেলার ৫৩টি কে›েন্দ্র মোট ১লাখ ৩হাজার ৪৭৪জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করার কথা। এরমধ্যে নারী ভোটার ৫১ হাজার ৬’শ ২১ এবং পুরুষ ভোটার ৫১হাজার ৮৭৩জন।