নলডাঙ্গায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

আপডেট: জানুয়ারি ১০, ২০১৮, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি


নাটোরের নলডাঙ্গায় এক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রশংসাপত্রের বিনিময়ে টাকা নেয়াসহ অনেক অনিয়মের অভিযোগ করেছেন ওই বিদ্যালয়ের অভিভাব ও বিদায়ী শিক্ষার্থীরা। উপজেলার বিলযোয়ানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হুমায়ন কবিরের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনা হয়।
বিলযোয়ানী স্কুলের অভিভাবক জহিরুল ইসলাম বলেন, আমাদের ছেলে মেয়েদের স্কুলে ১০০ টাকা দিয়ে প্রশংসাপত্র নিয়েছে। এর আগে অতিরিক্ত পরীক্ষা ফি আদায় করেছে। তিনি আরো বলেন, শিক্ষকের বাড়ি একই এলাকায় হওয়ায় সময় মতো স্কুলে যায় না বাড়ির কাজে ব্যস্ত থাকেন। স্কুল ম্যানেজিং কমিটিতে তার ভগ্নিপতিসহ আতীয়স্বজন থাকায় তিনি কাউকে কেয়ার করে না নিজের ইচ্ছামত স্কুল চালান। তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ দিলে কোন কাজ হয় না।
ওই স্কুলের বিদায়ী ছাত্র মেহেদী হাসান জানান, সম্প্রতি স্কুল থেকে পিএসসি পরীক্ষায় পাশ কারার পর ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার জন্য প্রশংসপত্র নিতে স্কুলে গেলে স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হুমায়ন কবীর তাদের প্রত্যেকের কাছ ১০০ টাকা করে নিয়ে প্রশংসাপত্র দেন।
এবিষয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি দেওয়ান শাহজালাল সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তিনি ইচ্ছামতো স্কুল চালান, বই বিক্রি করেন, সার্টিফিকেট তুলতে ও প্রশংসাপত্র নিতে টাকা নেন। এর আগে পরীক্ষা ফী অতিরিক্ত টাকা নেয়ায় মৌখিক ভাবে তাকে সর্তক করার পরও কোন কাজ হয়নি।
এব্যাপারে শিক্ষক হুমায়ন কবিরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ব্যস্ত পরে কথা বলবেন বলে ফোন রেখে দেন।
নলডাঙ্গায় উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রশিদা ইয়ামীন বলেন, প্রসংশাপত্র ও সনদপত্র নেবার জন্যে টাকা নেয়ার কোন বিধান নেই। যদি কেউ নিয়ে থাকে তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ