বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

নাটোরে আ’লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা । । ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলেসহ ৭৩ জন আসামি

আপডেট: December 19, 2016, 12:10 am

নাটোর অফিস


নাটোরের নলডাঙ্গায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় খাজুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমানের ছেলে ইকবাল হোসেন ও আত্মীয় আনিসুর রহমানসহ ৪৩ জন এবং অজ্ঞাত আরো ২০-৩০ জনকে অভিযুক্ত করে গতকাল রোববার দুপুরে নিহত সামাদ মোল্লার ন্ত্রী আসুরা বেগম বাদী হয়ে নলডাঙ্গা থানায় এ হত্যা মামলা দায়ের করেন।
অপরদিকে গতকাল দুপুর পর নিহত সামাদ মোল্লার চাঁদপুর ঈদগা মাঠে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাকে চাঁদপুর কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন  করা হয়। এদিকে আহতদের মধ্যে খাজুরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন এখনও শঙ্কামুক্ত নয় বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসক ডা. সুব্রত প্রামানিক।  নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফা কামাল মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। তদন্ত করে মামলায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারে অভিযান পরিচালনা করা হবে।
নলডাঙ্গা উপজেলার হালতিবিলে ১১ একর খাস জমি দখল নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল উপজেলার খাজুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি খলিলুর রহমান মৃধা এবং সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেনের মধ্যে। গত শনিবার বিরোধপূর্ণ ওই খাস জমি দখল করতে গেলে খলিলুর রহমান গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ৮ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সোহরাব হোসেন গ্রুপের সামাদ মোল্লা নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়।