নাটোরে জঙ্গি সন্দেহে আটক চার || ককটেল ও জেহাদি বই উদ্ধার

আপডেট: মার্চ ১৪, ২০১৮, ১২:৩৮ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


পুলিশ হেফাজতে জঙ্গিরা (ইনসেটে) আস্তানা থেকে উদ্ধার ককটেল-সোনার দেশ

নাটোরের দিঘাপতিয়ার একটি বাড়ি থেকে জঙ্গি সন্দেহে চার জনকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় সেখান থেকে পাঁচটি ককটেল, ল্যাপটপ, তিনটি ছোরা ও জেহাদি বই উদ্ধার করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার ভোরে দিঘাপতিয়া উত্তরা গণভবনের পেছনের একটি বাড়ি থেকে তাদের আটক ও মালামাল উদ্ধার করা হয়।
আটককৃতরা হলেন, নাটোরের বাগাতিপাড়ার জামনগর পশ্চিমপাড়া মহল্লার মৃত শুকুর আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম, চাপাপুকুর উত্তরপাড়া মহল্লার ভিকু মন্ডলের ছেলে ফজলুর রহমান, সিংড়ার আড়কান্দি পশ্চিমপাড়া মহল্লার ইউসুফ আলী মিয়ার ছেলে আনিসুর রহমান আনিস ও নলডাঙ্গা খোলাবাড়িয়া গ্রামের ফজলার রহমানের ছেলে জাকির হোসেন জাকির। বর্তমানে আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
নাটোরের পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিঘাপতিয়া উত্তরা গণভবনের পেছনের এলাকায় প্রাচীর ঘেরা জনৈক ইকবাল হাজির দুইটি বাড়িতে সন্দেহজনক কিছু অপরিচিত লোকের আনাগোনা লক্ষ্য করা গেছে। তারা গোপন বৈঠক করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার মধ্যরাত থেকেই বিপুল সংখ্যক পুলিশ বাড়ি দুইটি ঘিরে রাখে। রাতের অন্ধকারে বাড়িতে অভিযান না চালিয়ে দিনের আলো ফুটে ওঠার অপেক্ষায় থাকে পুলিশ। পরে মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৬টার দিকে পুলিশ তাদের আস্তানায় অভিযান শুরু করে। প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় পুলিশ ওই আস্তানা থেকে জঙ্গি সন্দেহে চার জনকে আটক করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে নিয়ে যায়। আটককৃতদের নিয়ে যাওয়ার পর ওই বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে সেখান থেকে পাঁচটি ককটেল, ল্যাপটপ, তিনটি ছোরা ও বেশকিছু জেহাদি বই উদ্ধার করা হয়। অপর বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায় নি। বাড়িটিতে পুলিশ প্রহরায় রাখা হয়েছে। বর্তমানে আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে দেখা হচ্ছে জঙ্গিবাদের সঙ্গে কেউ জড়িত আছে কিনা। জিজ্ঞাসাবাদের পর বিস্তারিত জেনে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।