নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে নলডাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন

আপডেট: March 29, 2020, 6:58 pm

নাটোর প্রতিনিধি


নলডাঙ্গা উপজেলায় নিম্ন আয়ের মানুষদের মাঝে নিত্যদ্রব্য বিতরণ করে উপজেলা প্রশাসন-সোনার দেশ

করোনার সংক্রমণ এড়াতে স্থানীয় জনগণকে সচেতন করা, হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখার পাশাপাশি নিম্ন আয়ের মানুষের খোঁজ-খবর রাখছেন এবং খাবারসহ নিত্যদ্রব্য সামগ্রী পর্যন্ত পৌঁছে দিচ্ছেন নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাকিব- আল- রাব্বি ।
স্থানীয় ব্রহ্মপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. হাফিজুর রহমান ও পিপরুল ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ কলিমুদ্দিন কলি বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন এবং হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আমাদের সঙ্গে নিয়ে ইউএনও সকাল থেকে রাত পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্নস্থানে যাচ্ছেন । কোথাও কোন রকম আইনের ব্যত্যয় ঘটলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আইন অমাণ্যকারীদের বিরুদ্ধে জরিমানাও করছেন তিনি। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন আইন ভঙ্গকারী বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়েছেন। করোনা ভাইরাসকে পুঁজি করে অসাধু ক্রেতারা দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করে দিয়েছেন। এ জন্য উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাজার নজরদারি করে জরিমানাও করেছে অসাধু দোকানিদের বিরুদ্ধে।
নলডাঙ্গার রেজাউল করিম বলেন, ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে হাট-বাজার, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, গণপরিবহন বন্ধ রাখর ঘোষণা দেয় সরকার। এতে বিপাকে পড়ে নিম্ন আয়ের মানুষ। তাদের কথা চিন্তা করে তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়িয়েছেন মানবিক এ কর্মকর্তা। নিজের ব্যক্তিগত উদ্যোগে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। নিজ হাতে অসহায়দের মাঝে তুলে দিয়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী।
নলডাঙ্গা উপজেলার ইউএনও মো. সাকিব- আল- রাব্বি বলেন, হাট-বাজার বন্ধ হওয়ায় সবচেয়ে বেশি খেটে খাওয়া ও অসহায় মানুষগুলো ক্ষতির সম্মুখিন হবে। তাদের একজনের রোজগারে পুরো পরিবার চলতো। এখন তাদের উপার্জন বন্ধ। এ জন্য সাধ্য অনুযায়ী আমি তাদের সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছি। ইউনিয়ন পর্যায়ে চেয়ারম্যান করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি করা হয়েছে। আজ রোববার থেকে নাটোর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ ইউনিয়নভিত্তিক অভিযানে বের হয়েছেন। খুব জরুরি প্রয়োজন না হলে ঘর থেকে বের হওয়ার নির্দেশনা দেন ।