নির্বাচকদের মন বড় করতে বললেন রাসেল

আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০১৮, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সবশেষ ম্যাচেই নিয়েছিলেন ৪ উইকেট। সেই পারফরম্যান্স তাকে স্বপ্ন দেখিয়েছিল নতুন করে মাথা তুলে দাঁড়ানোর। কিন্তু সৈয়দ রাসেলের সেই স্বপ্নে বড় ধাক্কা লাগল এই মৌসুমে। প্লেয়ার্স ড্রাফটের তালিকায় অভিজ্ঞ বাঁহাতি এই পেসারকে রাখা হয়েছে সবশেষ গ্রেডে!
বৃহস্পতিবার রাতে প্রকাশ করা হয়েছে ড্রাফটের ২২৭ ক্রিকেটারের তালিকা, যেখানে সবশেষ ‘সি’ গ্রেডে রাখা হয়েছে রাসেলকে, যেখানে পারিশ্রমিক সাড়ে তিন লাখ টাকা।
দীর্ঘদিনের চোট কাটিয়ে আড়াই বছর পর গত ঢাকা লিগে ফেরেন রাসেল। লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে খেলেন ৬টি ম্যাচ। আহামরি কিছু না হলেও ফেরার পর খুব খারাপও ছিল না পারফরম্যান্স। উইকেট নিয়েছিলেন ৮টি। সবশেষ ম্যাচে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন ৩৩ রানে।
শেষের ওই পারফরম্যান্স জানান দিচ্ছিল, আবার নিজেকে ফিরে পাওয়ার পথেই এগোচ্ছেন রাসেল। এবার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন আরও ভালো করে। কিন্তু তালিকায় সবশেষ ক্যাটেগরিতে নিজেকে দেখে স্তম্ভিত হয়ে পড়েছেন।
সবশেষ ক্যাটেগরিতে রাখা হয়েছে জাতীয় দলের বাইরে থাকা আরেক পেসার রবিউল ইসলামকেও। তালিকার সেই ছবি দেখিয়ে রাসেল ক্ষোভ জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
“নির্বাচকদের বলছি, মনটা আরেকটু বড় করুন। টেস্ট খেলা দুজন ক্রিকেটারকে এভাবে অপমান না করলেও পারতেন। আপনারই বলেন শ্রদ্ধা করতে, কিন্তু নিজেরাই শ্রদ্ধা করতে শিখলেন না। রেকর্ড ঘাটুন। পারফর্ম করে ক্রিকেট খেলি, চেহারা দেখিয়ে নয়।”
বাংলাদেশের হয়ে ৬ টেস্ট, ৫২ ওয়ানডে ও ৮ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ৩৩ বছর বয়সী রাসেল। ২০০৭ বিশ্বকাপে দলের সাফল্যে ছিল উল্লেখযোগ্য অবদান। এক সময় ওয়ানডেতে ছিলেন দলের পেস আক্রমণের বড় ভরসা।