নির্বাচনী পোস্টার সরান, নামছে ভ্রাম্যমাণ টিম!

আপডেট: নভেম্বর ১৯, ২০১৮, ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী নির্বাচনী প্রচারে ব্যানার, বিলবোর্ড, পোস্টারসহ বিভিন্ন সামগ্রী সরিয়ে ফেলার সময় শেষ। নির্দেশনা অনুযায়ী রোববারের (১৮ নভেম্বর) মধ্যে এগুলো না সরালে আইনি ব্যবস্থা নেবে ইসি।
কমিশনের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ছয়টি ভ্রাম্যমাণ টিম মাঠে নামছে। নগরীর বিভিন্ন স্থানে টিমগুলো অভিযান চালাবে। নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘন করলে অনধিক ৬ মাসের কারাদ- অথবা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদ- অথবা উভয় দণ্ডের বিধান রয়েছে।
এ জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে পোস্টার অপসারণের আহ্বান জানিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। সোমবার (১৯ নভেম্বর) থেকে ছয়টি টিম সকাল ১০টা থেকে ৫টা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করবে। টিমে থাকছেন সাত জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।
টিমের অন্যতম সদস্য ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সাজিদ আনোয়ার। বাংলানিউজকে তিনি বলেন, ইসির নির্দেশনার পরে আমরা নির্বাচনী পোস্টার অপসারণ করছি। তবে কালকে থেকে আমরা অ্যাকশনে যাব। পোস্টার না সরালেই আইনানুগ ব্যবস্থা। নির্বাচনী পোস্টার সাঁটানো দেখলেই সঙ্গে সঙ্গে জেল জরিমানা করবো। আমরা পোস্টার দেখলেই বুঝতে পারবো এটা কত দিন আগে লাগানো হয়েছে, সেই মোতাবেক ব্যবস্থা। ছয়টি টিমে ভাগ হয়ে ডিএনসিসি এলাকায় আমরা অভিযান পরিচালনা করবো।
আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী, ভোটের নির্ধারিত তারিখের ২১ দিন আগে কোনো ধরনের প্রচার চালানো যাবে না। এছাড়া সব ধরনের প্রচারসামগ্রী হবে সাদাকালো। প্রথম দফা গত ৮ নভেম্বর তফসিল অনুযায়ী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে এসব প্রচারসামগ্রী তুলে ফেলতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। পরে গত ১২ নভেম্বর পুনঃতফসিল হওয়ায় তিন দিন বাড়িয়ে ১৮ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়।
ইসির নির্দেশনা সত্ত্বে এখনও নগরীতে অনেকের পোস্টার রয়ে গেছে। ডিএনসিসি সূত্র জানায়, রোববার (১১ নভেম্বর) থেকে পাঁচ দিনে ১ লাখ ৮৭ হাজার ৫০০টি নির্বাচনী পোস্টার অপসারণ করা হয়েছে। ৯০ শতাংশ পোস্টারই নির্বাচন সংক্রান্ত ব্যক্তিগত পোস্টার।
ডিএনসিসি ভারপ্রাপ্ত মেয়র জামাল মোস্তফা বাংলানিউজকে বলেন, বাসা বাড়িতে সড়কে যেখানেই নির্বাচনী পোস্টার আছে সেগুলো সরিয়ে ফেলুন। তা না হলে আমাদের ভ্রাম্যমাণ টিম সোমবার থেকে মাঠে নামবে। নির্বাচনী পোস্টার সরাতে গাফিলতি করলেই আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ